২০, জানুয়ারী, ২০১৮, শনিবার | | ৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৯

এবারের বিপিএলে সবচেয়ে বাজে খেলেছেন যে ১১জন

আপডেট: ১৫ ডিসেম্বর ২০১৭, ১২:৩১ পিএম

এবারের বিপিএলে সবচেয়ে বাজে খেলেছেন যে ১১জন

এবারের বিপিএলে ব্যর্থ ক্রিকেটারদের মধ্য থেকে একটি একাদশ দাঁড় করাতে চেষ্টা করা হয়েছে। এটিকে ‘ফ্লপ’ একাদশও বলা যেতে পারে। এক নজরে দেখেনিন বিপিএলের সেই ফ্লপ একাদশঃ

সৌম্য সরকারঃ চিটাগং ভাইকিংসের এই ওপেনার ১১ ইনিংসে করেছেন ১৬৯ রান, সর্বোচ্চ ৩৮।

রনি তালুকদারঃ এই টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান খেলেছেন ৮ ম্যাচ, রান করেছেন ১২৩।

জস বাটলারঃ ১৪ ম্যাচে মাত্র একটি ফিফটি করলেও ২২৫ রানের বেশি করতে পারেননি তিনি।  ১৩ ইনিংসে তাঁর মোট রান ব্যাটিং গড় মাত্র ১৮.৭৫।

মুশফিকুর

রহিমঃ তিনি ১৮.৫০ গড়ে ১১ ইনিংসে তাঁর রান মাত্র ১৮৫।

মিসবাহ উল হকঃ ৪ ম্যাচের দুটিতেই অপরাজিত ছিলেন তিনি।  মোট ৮৩ রান করেছেন ভাইকিংসের অধিনায়ক, বল খেলেছেন ৯১টি।  কিছু ম্যাচে ব্যাটিং দিয়ে শুরুতেই দলকে পিছিয়ে দিয়েছিলেন, তা থেকে আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি তাঁর দল।

জেমস ফ্রাঙ্কলিনঃ তিনি ১১২.৪২ স্ট্রাইক রেটে ১১ ম্যাচে করেছেন ১১৮।  বোলিংয়ে ম্যাচ জেতানো কোনো স্পেল নেই।  বরং ৮.৮৩ ইকোনমি রেটে উদার হস্তে রান বিলিয়েছেন।

লুইস রিসঃ ৮ ম্যাচে রান করেছেন ১৪১, উইকেট নিয়েছেন ৭টি।  দলের প্রয়োজনে জ্বলে উঠতে বরাবরই ব্যর্থ হয়েছেন রিস।

তানবীর হায়দারঃ ১০ ম্যাচে ৩ উইকেট আর ৩৫ রান, তানবীর হায়দারের বিপিএল-দুর্দশা বোঝাতে এই তথ্যটুকুই।

লাসিথ মালিঙ্গাঃ ৮ ম্যাচে ৮ উইকেট নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে তাঁকে।  ইকোনমি রেটটাও ভালো নয়—৮.৬১।

শুভাশিস রায়ঃ মাশরাফি বিন মুর্তজার সঙ্গে ২২ গজেই ঝগড়া করে ক্রিকেটভক্তদের কাছে খলনায়কে পরিণত হয়েছিলেন শুভাশিস।  জাতীয় দলের নিয়মিত বোলার হয়েও ৫ ম্যাচে ৪ উইকেট নেওয়ায় তিনিই ‘ফ্লপ’ একাদশের প্রধান বোলার।

তাইজুল ইসলামঃ ৮ ম্যাচে ৫ উইকেট নিয়েছেন তিনি।  সাকিব আল হাসান ২২ উইকেট নিয়ে টুর্নামেন্টের সেরা বোলার হওয়ার পর তাইজুলের ব্যর্থতাটা বেশি করেই চোখে বিঁধছে।