২১, এপ্রিল, ২০১৮, শনিবার | | ৫ শা'বান ১৪৩৯

মাঝ নদীতে ভেসে উঠল পুরোনো বাড়ি

আপডেট: ১৫ ডিসেম্বর ২০১৭, ১২:১১ পিএম

মাঝ নদীতে ভেসে উঠল পুরোনো বাড়ি
মাঝনদীতে পাওয়া গেল পুরনো বাড়ির ধ্বংসাবশেষ।   ঘটনাটি ঘটেছে ​পশ্চিম মেদিনীপুরের​ গড়বেতায়।   ঘটনা ঘিরে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। 

বুধবার গড়বেতার রাজবল্লভপুরে শিলাবতী নদীতে পুরনো বাড়ি বা মন্দিরের ভাঙাচোরা অংশ দেখতে পাওয়া যায়।   রাজবল্লভপুর-সহ আশেপাশের গ্রামে শয়ে শয়ে মানুষ ভিড় জমান নদীঘাটে।   ছুটে আসেন স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রতিনিধিরা।   আসেন সন্ধিপুর ফাঁড়ি গড়বেতা থানার পুলিশ। 

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বুধবার বিকেলে শিলাবতী নদীতে
মাছ ধরতে গিয়েছিলেন রাজবল্লভপুর গ্রামের কয়েকজন যুবক।   নদীঘাট থেকে প্রায় ৩০০ মিটার পূর্বদিকে মাঝনদীতে থরে থরে সাজানো পুরনো ইটের সারি দেখতে পান।   নদীতে জল বেশি থাকায় তাঁরা সামনে গিয়ে দেখতে পারেননি। 

বৃহস্পতিবার নদীতে জল কিছুটা কমলে রাজবল্লভপুর গ্রামের বাসিন্দারা দল বেঁধে নদীঘাটে গিয়ে দেখতে পান মাঝনদীতে রয়েছে একটি পুরনো বাড়ির ধ্বংসাবশেষ।   গ্রামের বাসিন্দা শিক্ষক মঙ্গলপ্রসাদ মাইতি বলেন, ‘‘নদীর প্রায় মধ্যবর্তী অংশে ২০-২২ ফুট লম্বা, আড়াই ফুট চওড়া ইটের ভাঙাচোরা দেওয়ালের মতো দেখা যাচ্ছে।   মনে হচ্ছে কোনও পুরনো মন্দির, কিংবা বসতবাড়ি, যা এক সময়ে নদীগর্ভে চলে যায়।  ’’

 ইতিহাসবিদ তারাশঙ্কর ভট্টাচার্য বলেন, ‘‘এক সময়ে গড়বেতা-সহ বগড়ি এলাকায় অচল সিংহের রাজত্ব ছিল।   তাঁর কোনও গোপন গড় বা আস্তানা হতে পারে।   কিংবা রাজবল্লভপুর গ্রামের পাশে মালবাঁন্দিতে নীলকর সাহেবদের কুঠি ছিল।   সেই সাহেবদের আস্তানাও হতে পারে।   তবে পরীক্ষানিরীক্ষা করা দরকার।  ’’ গড়বেতা ১ ব্লকের যুগ্ম বিডিও বিশ্বনাথ ধীবর জানিয়েছেন ঘটনাটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।