১৭, জানুয়ারী, ২০১৮, বুধবার | | ২৯ রবিউস সানি ১৪৩৯

‘আনপ্রেডিক্টেবল’ পাকিস্তান, যাদের দুষলেন সরফরাজ

আপডেট: ১৪ জানুয়ারী ২০১৮, ০৫:৫১ পিএম

‘আনপ্রেডিক্টেবল’ পাকিস্তান, যাদের দুষলেন সরফরাজ

ক্রিকেটের ক্ষেত্রে ২০১৭ সালটা পাকিস্তানকে অনেক কিছুই দিয়েছে। গত বছরের শুরুতে অস্ট্রেলিয়ার কাছে বাজেভাবে হারলেও বছরের মাঝামাঝি সময়ে এসে দেখা যায় অন্য পাকিস্তানকে।

র‌্যাঙ্কিংয়ের তলানির দল হিসেবে চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে অংশ নেয় সরফরাজের নেতৃত্বাধীন দল। টুর্নামেন্টের আন্ডারডগ হিসেবে খেলতে নামা দলটি শেষ পর্যন্ত চ্যাম্পিয়ন হয়ে বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দেয়। এই আসরের পর শ্রীলঙ্কাকে হোয়াইটওয়াশ করে ওয়ানডেতে টানা ১১ জয়ের রেকর্ড গড়ে দলটি। তাই ২০১৭ সালটা ক্রিকেটের

ক্ষেত্রে পাকিস্তানময় বললেও ভুল হবে না।

আসল নতুন বছর। ফেভারিট হয়েই তাসামান সাগরের দেশ নিউজিল্যান্ডে সিরিজ খেলতে যায় দলটি। বৃষ্টি বিঘ্নিত প্রথম ম্যাচে ৬১ রানে হারে দলটি। দ্বিতীয়টিতে ঘুরে দাঁড়ানোর আশা জাগিয়েও অধরা জয়। বিপরীতে ৮ উইকেটে হার। প্রথম দুই ওয়ানডে হেরে বিপাকে পড়া দলটির বাঁচা-মরার লড়াই ছিল গতকাল তৃতীয় ওয়ানডেতে। কিন্তু আরো বিধ্বস্ত পাকিস্তান। আনপ্রেডিক্টেবল তকমা পাওয়া দলটি তৃতীয় ওয়ানডেতে ২৫৮ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে গুটিয়ে যায় মাত্র ৭৪ রানে। বছরের শুরুতেই পাকিস্তানের এমন হার ১৮ সালের জন্য পাকিস্তানের অশনি সংকেত বলেও দাবি করেছেন অনেকে।

পিটিবি স্পোর্টসের গ্রুপে এক ভক্ত বলেন, বিশ্বের মধ্যে ব্যতিক্রমী কোনো দল থাকলে মনে হয় এটাই আছে। যারা জিতলে জিততেই থাকে, আর হারলে জয়ের ম্যাচও বিলিয়ে দিয়ে আসে।

এ সংক্রান্ত বিষয়ে ম্যাচ শেষে প্রেস কনফারেন্সের মুখোমুখি হন পাক অধিনায়ক সরফরাজ। সংবাদ সম্মেলনের শুরুতেই ব্যাটসম্যানদের দুষলেন এই অধিনায়ক, আমাদের বোলাররা তাদের কাজ ভালোভাবেই করেছে। কিন্তু ব্যাটিংয়ে আমাদের সমস্যা রয়েই গেছে। নতুন বলে ব্যাটসম্যানরা এভাবে ধসে পড়বে এটা ভাবতে পারিনি। ব্যাটিংয়ে আমাদের দুর্বলতা আবারো প্রমাণ পেল।

সরফরাজ আরো বলেন, ১০ রানের মধ্যেই যখন আমাদের ৩ উইকেট পড়ে যায়। সেখান থেকে ঘুরে দাঁড়ানোটা অনেক কঠিন ছিল। এরপর অবশ্য মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের উপর ভরসা ছিল। কিন্তু তারাও ব্যর্থ হওয়াতেই আমাদের সূচনীয়ভাবে হারতে হয়েছে।

সরফরাজের সংবাদ সম্মেলনের জবাবে অনেকে বলেন, সে নিজেই এক নাম্বার ব্যর্থ ব্যাটসম্যান। অধিনায়কের দায়িত্ব শুধু ফিল্ডিং সাজানো না। তাকে ব্যাটসম্যান হিসেবেও সামনে থেকে নেতৃত্ব দিতে হবে। একজন অধিনায়ক যদি তিনটি ওয়ানডে মিলিয়ে ২৫ রান করে তাহলে বাকিদের থেকে আর কিই বা আশা করা যায়।