১৭, জানুয়ারী, ২০১৮, বুধবার | | ২৯ রবিউস সানি ১৪৩৯

কোনো বাড়তি সুবিধা দেখেন না মাশরাফি, হাথুরুসিংহে

আপডেট: ১৪ জানুয়ারী ২০১৮, ০৫:০৯ পিএম

কোনো বাড়তি সুবিধা দেখেন না মাশরাফি, হাথুরুসিংহে


ত্রিদেশীয় সিরিজে মাশরাফি বিন মুর্তজাদের প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা ও জিম্বাবুয়ের প্রধান কোচ বাংলাদেশের দুই সাবেক কোচ। এতে দুই প্রতিপক্ষ বাড়তি সুবিধা পাবে এমন মনে করছেন না মাশরাফি বিন মুর্তজা। তার সঙ্গে একমত শ্রীলঙ্কার প্রধান কোচ চন্দিকা হাথুরুসিংহেও।

২০১৪ সালের ২৬ মে মাসে বাংলাদেশের বোলিং কোচের দায়িত্ব নেন স্ট্রিক। দুই বছরের মেয়াদ শেষে চুক্তি নবায়ন করেননি তিনি। ২০১৬ সালের অক্টোবরে দায়িত্ব নেন জিম্বাবুয়ের প্রধান কোচ হিসেবে।

সাড়ে তিন বছর বাংলাদেশের

প্রধান কোচের দায়িত্ব পালন করে সরে যান হাথুরুসিংহে। শ্রীলঙ্কার নতুন প্রধান কোচ হিসেবে তার প্রথম মিশন বাংলাদেশ সফর।

হাথুরুসিংহে ও স্ট্রিক বাংলাদেশের প্রায় সব ক্রিকেটারের শক্তি-দুর্বলতা জানেন। মাশরাফি মনে করেন, ম্যাচে তার একটা প্রভাব থাকতে পারে কিন্তু তা ফল নির্ধারক কিছু হবে না।

“আমাদের পুরো দল সম্পর্কে তাদের ধারণা থাকতে পারে। হিথ স্ট্রিক প্রায় দেড়-দুই বছর হলো বাংলাদেশ থেকে গেছেন। হাথুরুসিংহে সম্প্রতি গেছেন। তার বিশ্লেষণ কিছুটা হলেও কাছাকাছি যেতে পারে। তিনি আমাদের শেষ সিরিজেও ছিলেন।”

“তাদের চিন্তা, ভাবনা; তারা যেভাবে পরিকল্পনা করতে পারেন সেটা আমাদেরও সবাই জানে। আমাদেরও ওভাবে পরিকল্পনা করতে হবে। আমাদের পরিকল্পনার অন্তত ৭০-৮০ ভাগ যদি মাঠে প্রয়োগ করতে পারি তাহলে আশা করি সমস্যা হবে না। আমাদের নজর এখন সেখানেই।”

নিজের সাবেক দলের বিপক্ষে শ্রীলঙ্কার খেলায় কোনো বাড়তি সুবিধা দেখেন না হাথুরুসিংহে।

“এই যুগে তথ্য পাওয়া খুব কঠিন কিছু না। ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি লিগগুলো কাজ আরও সহজ করে দিয়েছে। অনেক শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটারও এখানে খেলে। তারা সবাই পরস্পরকে খুব ভালোভাবে জানে। যথেষ্ট তথ্য সহজেই পাওয়া যায়। বাড়তি সুবিধা তাই খুব বেশি নেই। বাংলাদেশের ক্রিকেটাররাও জানে আমি কিভাবে পরিকল্পনা করি, আমার ভাবনা কেমন। সেদিক থেকে খুব বেশি বাড়তি সুবিধা নেই।”