২৩, এপ্রিল, ২০১৮, সোমবার | | ৭ শা'বান ১৪৩৯

বাংলাদেশের নাটক-চলচ্চিত্রে কাজ করতে চাই : সুদীপ্তা

আপডেট: ১৪ জানুয়ারী ২০১৮, ১১:১৫ এএম

বাংলাদেশের নাটক-চলচ্চিত্রে কাজ করতে চাই : সুদীপ্তা
স্টার জলসা মেগা সিরিয়াল এর ‘বাহা’ চরিত্রে জনপ্রিয়তা পান তিনি।  এরপর ‘বয়েই গেল’, ‘ইস্টিকুটুম’সহ বেশ কিছু সিরিয়ালে তার উপস্থিত মাতিয়েছে দর্শক।  বর্তমানে গ্রামের মেয়ে ময়না হয়ে ‘বিকেলে ভোরের ফুল’র মাধ্যমে অনেক বেশিই দর্শকপ্রিয়তা তার।  এইসব সিরিয়ালগুলোর মাধ্যমে কলকাতার পাশাপাশি এপার বাংলাতেও পরিচিত মুখ অভিনেত্রী সুদীপ্তা চক্রবর্তী।  তার সমসাময়িক বিষয় ও কাজ নিয়ে  কথা বলেন।  




বর্তমান ব্যস্ততা সম্পর্কে জানতে চাই....

সুদীপ্তা : আমি বেশ
কিছু স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে কাজ করেছি এরই মধ্যে।  নতুন আরেকটি কাজ শুরু হলো।  আর সিরিয়ালের কাজ তো আছেই। 







 অভিনয়ের শুরুটা কিভাবে ছিল? 

সুদীপ্তা : খুব ছোটবেলা থেকেই কথক শিখতাম।  বিভিন্ন অনুষ্ঠানে নাচ করতাম।  এরপর দশ বছর বয়সে অভিনয়ের সঙ্গে যুক্ত হই।  অভিনয়ের শুরুটা হয় চলচ্চিত্র দিয়ে।  পঞ্চম শ্রেণিতে থাকাকালীন সময়ে প্রথমবারের মত পার্থসারীর ফিচার ফিল্ম ‘মেমসাহেব’- এ অভিনয় করি। 




 মেগা সিরিয়ালেও তো কাজ করেছেন।  অভিজ্ঞতাটা কেমন?

সুদীপ্তা : আমার অভিনয়ের শুরুটা চলচ্চিত্র দিয়ে।  ৮টি চলচ্চিত্রে কাজ করার পর মেগা সিরিয়ালে অভিনয় করি।  দত্ত বাড়ির ছোট বউ, ইষ্টিকুটুম, বয়েই গেলো, বিকেলে ভোরের ফুল নামের মেগা সিরিয়ালগুলোতে কাজ করেছি।  মেগা সিরিয়াল থেকে অনেক বেশি সাড়া পেয়েছি।  বলা যায়, আমি স্টার হয়েছি এখান থেকেই। 




সবচেয়ে বেশি প্রশংসিত ও দর্শকপ্রিয়তা পেয়েছেন কোন কাজটিতে?

সুদীপ্তা : জি বাংলার ‘বয়েই গেলো’ মেগা সিরিয়ালে ‘মাধবীলতা’ চরিত্রটাতে কাজ করে আমি বেশি সাড়া পেয়েছি।  আর স্টার জলসার ‘ইস্টিকুটুম’-এ বাহা চরিত্রের জন্য অনেক বেশি প্রশংসা পেয়েছি। 




সবমিলিয়ে কতগুলো চলচ্চিত্র ও সিরিয়ালে কাজ করেছেন?

সুদীপ্তা : মেমসাহেব, ফেরা, চোরাবালি, বন্ধু এসো তুমি, সাহিত্যের সেরা সময়, পুলিশ ফাইল, খিলাড়ি, আগুনের পাখিসহ এখন পর্যন্ত ১২টি চলচ্চিত্র ও ৫টি মেগা সিরিয়াল করেছি।  এছাড়াও ব্যামাক্ষ্যাপা ও ভক্তের ভগবান শ্রীকৃষ্ণতেও কাজ করেছি। 




বলছিলেন ১৭টি বছর কাটিয়ে দিয়েছেন ইন্ডাস্ট্রিতে।  এতটা সময় ধরে কাজ করার পর নিজের অবস্থান কতটুকু তৈরি করতে পেরেছেন বলে মনে হয়?

সুদীপ্তা : অনেক ছোটবেলা থেকে এখানে কাজ করতে করতে জায়গাটাকে ভালোবেসে ফেলেছি।  যখন ছোট ছিলাম তখন এতটা বুঝতাম না কিন্তু ধীরে ধীরে ম্যাচিউরড হয়েছি।  এখনো অনেক কিছু শেখার বাকি।  শিখতে চাই।  আমি ভালো কাজ করে যেতে চাই। 




 অভিনয়ে প্রাপ্তির জায়গা কতটুকু?

সুদীপ্তা : আমার দীদার ইচ্ছায় আমি অভিনয় শুরু করি।  এখান থেকে অনেক কিছুই পেয়েছি।  সবার অনেক ভালোবাসা ও উৎসাহ পেয়েছি।  ভালো কাজের জন্য কেউ প্রশংসা করলে সেটা খুব উপভোগ করি। 




বাংলাদেশেও তো আপনার সিরিয়ালগুলো বেশ জনপ্রিয়।  এটা জানেন?

সুদীপ্তা : হ্যাঁ জানি।  এটা আমি বেশ উপভোগ করি।  আমারও বাংলাদেশের অনেককেই ভালো লাগে। 




বাংলাদেশে কাজের ইচ্ছে আছে?

সুদীপ্তা : অনেক।  বাংলাদেশের নাটক বা চলচ্চিত্রে কাজ করার খুব ইচ্ছে।  ভালো কাজের সুযোগ পেলে অবশ্যই সেখানে কাজ করবো। 




নতুন বছরে প্রত্যাশা কি? 

সুদীপ্তা : ভালো কাজ করে যেতে চাই।  দর্শকদের অনেক ভালোবাসা পেতে চাই। 




 শেষবেলায় আপনার পরিবার ও শিক্ষা সম্পর্কে জানতে চাই.....

সুদীপ্তা : আমরা দু ভাই-বোন।  পরিবারে বাবা, মা আর ভাই আছে।  আমি নৈহাটি প্রফুল্ল সেন গার্লস উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক ও ঋষি বঙ্কিমচন্দ্র কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক দিয়ে জার্নালিজম নিয়ে পড়াশোনা করেছি।