২২, জানুয়ারী, ২০১৮, সোমবার | | ৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৯

শিরোনাম ভারতে ট্রেনে বাংলাদেশি নারীর শ্লীলতাহানি করল বিএসএফ জওয়ান সৈয়দপুর বিমানবন্দরে যাত্রা শুরু করল রিজেন্ট এয়ারওয়েজ প্রতিদিন চলবে দুটি বিশ্বরেকর্ড গড়তে তামিমের প্রয়োজন মাত্র ৪২ রান! উল্লাপাড়ায় গৃহবধূ কে জোরপূর্বক ধর্ষনের চেষ্টার অভিযোগ আইপিএলে এখন পর্যন্ত মাশরাফিকে ছাড়াতে পারেনি কোনো বাংলাদেশী! ওয়ালটন মিডিয়া কাপ ব্যাডমিন্টন ফেব্রুয়ারিতে রাজধানীর মিরপুরে মাদকের ছড়াছড়ি বিষের বোতল হাতে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে কলেজছাত্রীর অনশন মানবতার দৃষ্টান্ত রাখলেন সিরাজদিখান উপজেলা চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন আহমেদ বিসিএলে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড খুলনায়

দশ টাকার লোভ দেখিয়ে কনস্টেবলের বিরুদ্ধে শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ

আপডেট: ১৩ জানুয়ারী ২০১৮, ১২:২২ এএম

দশ টাকার লোভ দেখিয়ে কনস্টেবলের বিরুদ্ধে শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ

মাত্র ১০ রুপির লোভ দেখিয়ে সাত বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে ভারতের এক পুলিশের কনস্টেবলের বিরুদ্ধে। নক্কারজনক এই ঘটনাটি ঘটেছে দেশটির গ্রেটার নয়ডার সুরজপুর এলাকায়।

অভিযোগ থেকে জানা যায়, বুধবার সন্ধ্যাবেলায় রুপির লোভ দেখিয়ে ৭ বছরের ওই ছোট্ট শিশুটিকে ধর্ষণ করেন সেলস ট্যাক্স ডিপার্টমেন্টে কর্মরত পুলিশ কনস্টেবল সুভাষ সিং (৪৫)। প্রায় আধা ঘণ্টা ধরে ওই কিশোরীর ওপর পৈশাচিক নির্যাতন চলে।

জানা গেছে সন্ধ্যায় গৌতমবুদ্ধ নগর জেলার নাগাদ সুরজপুর এলাকায়

বাড়ির সামনেই খেলা করছিল ছোট্ট শিশুটি। সেসময় শিশুটির মা একটি কারখানায় কর্মসূত্রে বাইরে ছিলেন। আর সেই সুযোগেই রুপির লোভ দেখিয়ে ওই শিশুটিকে পাশেই নিজের ঘরে নিয়ে যায় সুভাষ। কিন্তু একসময় শিশুটির কান্না শুনে স্থানীয়রা ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করতে গেলে ঘটনাস্থল থেকে সুভাষ পালিয়ে যায়। সারারাত বাইরে কাটানোর পর বৃহস্পতিবার সকালে নিজের বাড়িতে ফিরে তার উপস্থিতি টের পেয়ে তার ওপর ক্ষোভে ফেটে পড়ে স্থানীয় মানুষ। সুভাষকে জুতা দিয়ে মারধরের পাশাপাশি প্রকাশ্যে কান ধরে ওঠবস করা হয়। শেষে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয় অভিযুক্ত কনস্টেবলকে।

সুরজপুর পুলিশ থানার স্টেশন হাউজ অফিসার (এসএইচও) অখিলেশ প্রধান জানান, ‘অভিযুক্ত ব্যক্তি বৃহস্পতিবার সকালে বাড়ি ফিরে আসলে স্থানীয়রা তার উপর চড়াও হয়ে মারধর করে। পুলিশ খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছে অভিযুক্তকে আটক করেছে’।

ওই পুলিশ কর্মকর্তা আরও জানান, ‘অভিযুক্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে ‘প্রোটেকশন অব চিলড্রেন ফ্রম সেক্সুয়াল অফেন্সেস (পকসো) আইনে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তাকে আদালতে তোলা হয়েছে এবং রিমান্ডে পাঠানো হয়েছে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে পকসো আইনে সর্বনিম্ন ১০ বছরের সাজা হতে পারে। অন্যদিকে নির্যাতিতা ওই শিশুটির স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য নয়ডার ৩০ সেক্টরে জেলা হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে।