২২, জানুয়ারী, ২০১৮, সোমবার | | ৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৯

শিরোনাম ভারতে ট্রেনে বাংলাদেশি নারীর শ্লীলতাহানি করল বিএসএফ জওয়ান সৈয়দপুর বিমানবন্দরে যাত্রা শুরু করল রিজেন্ট এয়ারওয়েজ প্রতিদিন চলবে দুটি বিশ্বরেকর্ড গড়তে তামিমের প্রয়োজন মাত্র ৪২ রান! উল্লাপাড়ায় গৃহবধূ কে জোরপূর্বক ধর্ষনের চেষ্টার অভিযোগ আইপিএলে এখন পর্যন্ত মাশরাফিকে ছাড়াতে পারেনি কোনো বাংলাদেশী! ওয়ালটন মিডিয়া কাপ ব্যাডমিন্টন ফেব্রুয়ারিতে রাজধানীর মিরপুরে মাদকের ছড়াছড়ি বিষের বোতল হাতে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে কলেজছাত্রীর অনশন মানবতার দৃষ্টান্ত রাখলেন সিরাজদিখান উপজেলা চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন আহমেদ বিসিএলে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড খুলনায়

ধর্ষণ রুখতে স্মার্ট প্যান্টি তৈরি করল ভারতীয় ছাত্রী, খুলবে পাসওয়ার্ডে!

আপডেট: ০২ জানুয়ারী ২০১৮, ০৯:৩৫ পিএম

 ধর্ষণ রুখতে স্মার্ট প্যান্টি তৈরি করল ভারতীয় ছাত্রী, খুলবে পাসওয়ার্ডে!

সাত বছরের শিশুর সঙ্গে দুষ্কর্মের ঘটনা মন ভেঙে দিয়েছিল ১৯ বছরের সিনু কুমারীর। তখন থেকে তিনি এমন কিছু করতে চেয়েছিলেন যা নারীদের সুরক্ষার জন্য হবে।

আর সেই ভাবনা থেকেই ভারতের বিএসএসির ছাত্রী সিনু তৈরি করে ফেললেন এমন এক প্যান্টি যা আটকাবে ধর্ষণ।

কারণ উন্নত ইলেকট্রনিক প্রযুক্তিতে তৈরি এই প্যান্টিতে রয়েছে স্মার্টলক যা খুলবে শুধুমাত্র সঠিক পাসওয়ার্ড দিলেই। পাশাপাশি লোকেশনও জিপিআরএস-এর মাধ্যমে জানতে পারা যাবে, এতোটাই উন্নত প্রযুক্তির ব্যবহার করা

হয়েছে এই প্যান্টিতে।

ভারতের উত্তরপ্রদেশের ফাররুখাবাদ জেলার এক অত্যন্ত সাধারণ পরিবারের মেয়ে সিনু জানিয়েছেন, প্রতিদিনের এই ধর্ষণের ঘটনার খবরে তিনি হতাশ হয়ে যেতেন। একদিন সাত বছরের এক শিশুর সঙ্গে ঘটে যাওয়া এমনই এক মর্মান্তিক ঘটনা শুনে তিনি আর স্থির থাকতে পারেননি। সে সময়ই কিছু একটা করার প্রতিজ্ঞা তিনি নিয়েছিলেন মনে মনে। যেমন ভাবনা তেমন কাজ। সিনু তৈরি করে ফেললেন এই ধর্ষণ প্রতিরোধক প্যান্টি।

প্রায় একমাসের পরিশ্রমের পর এটি তৈরি করতে সফল হযন তিনি।

তবে এই প্যান্টিকে আরও অনেক উন্নত করা সম্ভব। কিন্তিু বিভিন্ন সংস্থার সাহায্যেই তা বাস্তবায়িত হতে পারে।


ব্লেডপ্রুফ কাপড় দিয়ে তৈরি এই প্যান্টিকে কাঁচি বা ব্লেড দিয়ে কাটা যাবে না, এমনকি আগুনও ধরানো যাবে না এতে। প্রায় ৫,০০০টাকা ব্যয় হয়েছে এটি তৈরি করতে। তাই সাধারণ প্যান্টির তুলনায় এর মূল্যও যে বেশি হবে তা স্বীকারও করেছেন সিনু। তবে সরকার যদি সাহায্যের হাত এগিয়ে দেয় তাহলে গরীব মহিলাদের কাছে পৌঁছে যেতে পারে এই সুরক্ষাকবচ।


সিনুর এই প্রচেষ্টায় সাড়া পড়ে গিয়েছে ভারতের সর্বত্র। এমনকি এই খবর পৌঁছে গিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মানেকা গান্ধীর কানেও। তিনিও যথেষ্ট প্রশংসা করেছেন সিনুর এই প্রচেষ্টার।