২০, জানুয়ারী, ২০১৮, শনিবার | | ৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৯

চেষ্টা থাকবে নিজের সেরাটা দেয়ার, বাকিটা আল্লাহ ভরসা: সাকিব

আপডেট: ১১ ডিসেম্বর ২০১৭, ০৯:২৬ এএম

চেষ্টা থাকবে নিজের সেরাটা দেয়ার, বাকিটা আল্লাহ ভরসা: সাকিব


বাংলাদেশ ক্রিকেটে মুশফিকুর রহীমের অধিনায়কত্ব অধ্যায়ের সমাপ্তি হয়েছে। ৬ বছরের টেস্ট অধিনায়কত্বের সমাপ্তি টেনে মুশফিকুর রহীমকে সরিয়ে অধিনায়ক করা হয়েছে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে। আর সাকিবের সহকারি হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে।

সাকিব পুনরায় অধিনায়কত্ব ফিরে পেয়ে সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন, সামনেই দারুণ সুযোগ আসছে। সেখানে নিজের সেরাটা দিতে চান। আগের তুলনায় দ্বিতীয় বারের মতো টাইগারদের দায়িত্ব নিয়ে তুলনামূলক ভাবে

আগের চেয়ে বেশ গোছানো একটা দল পেয়েছেন তিনি। তাই এবার বেশ আশাবাদী এই অলরাউন্ডার।

এই প্রসঙ্গে সাকিব বলেন, "সামনে একটি সুযোগ আসছে। সামনে হয়তো অনেক কিছু করার আছে। চেষ্টা থাকবে নিজের সেরাটা দেয়ার। বাকিটা আল্লাহ ভরসা। আমাদের দলটা খুব ভালো অবস্থানে আছে। ঘরের মাঠে তো আমরা খুবই ভালো করছি। আমি আসলে আশাবাদী।"


সাকিব জানিয়েছেন, দলের সবার সাথে বোঝাপড়াটা দারুণ হওয়ায় বাড়তি সুবিধা পাবেন তিনি। সবাই এক হয়ে কাজ করলে এবং নিজেদের অভিজ্ঞতা শেয়ার করলে দল পরিচালনা করা তার জন্য বেশ খানিকটা সহজ হয়ে যাবে বলেও মনে করে তিনি।


সাকিবের ভাষ্যমতে, "আমরা সবাই, সবাইকে চিনি। সবার সম্পর্কে জানি। কে কিরকম। সবথেকে বড় কথা হচ্ছে সবাই যেহেতু প্রফেশনাল। সবাই সবকিছু প্রফেশনালি হ্যান্ডেল করে। এখানে আমি আসলে সমস্যার কিছু দেখি না। সবাই একসাথে অভিজ্ঞতাটা শেয়ার করায়, আমার ব্যাপারটা একটু সহজ হয়ে যায়।"


সাকিব, রবিবার টেস্ট অধিনায়কত্ব পেলেও শনিবার থেকেই বাড়তি আলোচনায় ছিলেন। কারণ টাইগারদের বিদায়ী কোচ চান্ডিকা হাথুরুসিংহে শনিবার বিসিবির সাথে বিদায়ী সাক্ষাৎ করতে এসে বোমা ফাটিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, সাকিবের দক্ষিণ সফরে টেস্ট সিরিজ না খেলা কোনো ভাবেই মানতে পারেননি।


যার ফলে, বাংলাদেশ দলের প্রধাণ কোচের পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন। টাইগার অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান অবশ্য জানিয়েছেন, হাথুরুসিংহের মন্তব্য নিয়ে অবশ্য তিনি চিন্তিত নন। এই অলরাউন্ডার নিজের খেলা নিয়েই চিন্তিত। সেখানেই মনোযোগ দিতে চান তিনি।


সাকিব বলেছেন, "একেক জনের আলাদা ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত আছে। আমার কাছে যেটা সঠিক মনে হয়েছে তা আমি করেছি। আমি এগুলো নিয়ে মন্তব্য করা কোনো ফলপ্রসূ ব্যাপার হবে বলে মনে করি না। আমি এই বিষয়গুলো নিয়ে চিন্তিত নই। আমি জানি না কেন এগুলো নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। এগুলো আমার মাথায় নেই। আমার কাজ ক্রিকেট খেলা, নিজেকে ফিট রাখা। যেহেতু আমার প্রফেশন এটা যতদিন খেলি নিজের সেরাটা দিয়ে খেলার চেষ্টা থাকবে।"