২২, জানুয়ারী, ২০১৮, সোমবার | | ৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৯

আবারো প্রমাণ করলেন ধোনী ফুরিয়ে যাননি

আপডেট: ১০ ডিসেম্বর ২০১৭, ০৮:২৪ পিএম

আবারো প্রমাণ করলেন ধোনী ফুরিয়ে যাননি

জুবায়ের আহমেদ: তরুন ধোনীকে নিয়ে অনেকের প্রশ্ন ছিলো, খেলা নিয়ে কোন ডাউট না থাকলেও সিনিয়রদের নিয়ে ধোনীর মনোভাবের কথা কারো অজানা নয়, গাঙ্গুলীর ক্যারিয়ার থামিয়ে দেওয়ার পেছনের কারিগর হিসেবে ধোনীকেই মনে করেন অনেকে, সেসব এখন অতীত। গাঙ্গুলীর অবস্থার মতো ঠিক না হলেও ধোনীও পড়ন্ত বেলায় এসে পৌঁছেছেন। তিনফরম্যাটে অধিনায়কত্ব ছাড়ার পর ধোনীকে পারফর্ম করেই দলে থাকার তাগিদ তৈরী হয়। তবে আশার কথা ধোনীর বয়স বাড়লেও পারফরম্যান্সের ধার একটুও কমেনি, ফিনিশার ও ধৈর্য্যরে প্রতীক

হয়ে আছেন এখনো।

চলতি বছরে ওয়ানডেতে ভারতের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের তালিকায় উপরের দিকেই আছেন ধোনী। ধোনী ফুরিয়ে গেছেন এমন প্রশ্ন তোলার সুযোগই দিচ্ছেন না, তরুনদের চেয়েও ভালো পারফর্ম করছেন তিনি। 

আজ ধর্মশালায় কোহলীর পরিবর্তে রোহিত শর্মার নেতৃত্বে শ্রীলংকার সাথে সিরিজের ১ম ওয়ানডেতে খেলতে নামে ভারত। লাকমালের তান্ডবে চরম লজ্জায় পতিত হয় ভারত। ওয়ানডে ইতিহাসে প্রথম পাওয়ার প্লেতে মাত্র ১১ রান তোলে ভারত। তারপর মাত্র ২৯ রানে ৭ উইকেটের পতনের পর ওয়ানডে ইতিহাসের সর্বনিম্ন রান তথা ৩৫ রানেই অলআউট হওয়ার লজ্জার সামনে পড়েছিল স্বাগতিকরা। যেহেতু ২৯ রানেই ৭ উইকেট নেই, সেখানে আরো ৬ রান যোগ করতেই ৩ উইকেটের পতন অসম্ভব কিছু না। তবে উইকেটে ছিলেন ক্রিকেট বিশ্বের অন্যতম ধৈর্য্যরে প্রতীক ধোনী। চরম বিপর্যয়ের মুহুর্তে দলকে এগিয়ে নিতে থাকেন, কুলদ্বীপ যাদবকে (১৯) নিয়ে ভারতের সর্বন্মিন ৫৪ রানের লজ্জা ডিঙ্গিয়ে ১১২ রানের সংগ্রহ এনে দেন। শেষে ১০ উইকেট হিসেবে ৬৫ রান করে ধোনীই আউট হন। তবে দলকে এনে দিয়েছেন স্বস্তির সংগ্রহ, ২৯ রানে ৭ উইকেট পতনের পর ম্যাচ বাঁচানো দূরের কথা ৩৫ কিংবা ৫৪ রানে অলআউট হওয়া আটকানোই ভারতের জন্য চ্যালেঞ্জ ছিলো, সেটা ভালো ভাবেই জয় করলেন ধোনী। ১১২ রান নিয়ে ভারত লড়াইয়ের আশা করলেও লংকানরা অনাসায়েই জয়লাভ করে। ৩ উইকেট হারিয়েই জয় পায় শ্রীলংকা।