২১, এপ্রিল, ২০১৮, শনিবার | | ৫ শা'বান ১৪৩৯

দুই দিনের বর্ষনে কৃষকের মাথায় হাত

আপডেট: ১০ ডিসেম্বর ২০১৭, ০৭:৩২ পিএম

দুই দিনের বর্ষনে কৃষকের মাথায় হাত
বৃষ্টি কখনও আশির্বাদ হয়ে আসে আবার কখনও অভিশপ্ত হয়ে আসে কৃষকের জীবনে ।  শুক্র ও শনিবারের বৃষ্টি অভিশাপের রূপ নিয়ে এসেছে মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানের কৃষকদের জীবনে ।  দুই দিনের মুসলধারে বৃষ্টিতে আলুর ক্ষেতে পানি  জমেছে।   এতে কৃষকেরা খুব বড় ধরনের ক্ষতির সম্মুখিন হবে বলে জানিয়েছে সিরাজদিখানের কৃষকেরা। 

অনেক বছর যাবৎ মুন্সীগঞ্জের কৃষকেরা আলুর ভাল ফলন হলেও দাম পাচ্ছে না ।  এতে পথে বসতে বসেছে মুন্সীগঞ্জের কৃষকেরা।  সরকারের থেকেও আলু চাষীরা কোন
সাহায্য সহযোগীতাও পাচ্ছে না।  উত্তরাঞ্চলের কৃষকদের সাথেও মুন্সীগঞ্জের কৃষকেরা প্রতিযোগীতায় পেরে উঠছে না ।  কেননা উত্তরাঞ্চলে জমির ভাড়া কম ও শ্রমিকের মূল্য ও কম ।  মুন্সীগঞ্জে এক কানি জমি ভাড়ার টাকায় উত্তরাঞ্চলে ৫/৬ কানি জমি ভাড়া নেয়া যায় এবং শ্রমিকের মজুরীও অর্ধক।  সব কিছু মিলিয়ে মুন্সীগঞ্জের আলু চাষীদের দিন খুব খারাপভাবেই কাটছে।  

মুন্সীগঞ্জের আলু ঐতিহ্য ধরে রাখার জন্য সরকার থেকেও কোন প্রকার সহযোগীতা না পেয়ে পথে বসতে বসেছে লক্ষাধিক কৃষক । 

ব্রজেরহাটি গ্রামের কৃষক হাবুল শেখ জানান, তিনি ১ কানি জমিতে আলুর বিজ বপন করেছে।  এতে তার প্রায় ৮৭,০০০ টাকা ব্যয় হয়েছে।  যদি জমির পানি আজ-কালের মাঝে না সরে যায় তবে তাকে আবার নতুন করে জমিতে বিজ বপন করতে হবে। তাতে তার পুনরায় একই রকম  ব্যয় করতে হবে। 

সিরাজদিখান কৃষি কর্মকর্তা সুবোধ চন্দ্র রায় জানান, আগামীকাল রোদ দেখা দিলে আলুর তেমন কোন ক্ষতি হবে না ।  তবে বৃষ্টিতে শাক সবজি ও আগাম সরিষার জন্য উপকারী হবে।