২০, নভেম্বর, ২০১৮, মঙ্গলবার | | ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

গিটার নিয়ে গাইলেন, কাঁদলেন বাচ্চু পুত্র

চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে চোখের জলে আবেগঘন এক কনসার্ট অনুষ্ঠিত হয়ে গেল। প্রয়াত কিংবদন্তি ব্যান্ড সংগীতশিল্পী আইয়ুব বাচ্চুর মৃত্যুর পর প্রথম বারের মতো মঞ্চে পারফর্ম করল গুণী এ শিল্পীর প্রতিষ্ঠিত ব্যান্ড এলআরবি। বুধবার (১ নভেম্বর) সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় আয়োজিত উন্নয়ন কনসার্টের শেষ পরিবেশনায় ছিল এলআরবি। এদিন বাবা আইয়ুব বাচ্চুর গিটারই কাঁধে তুলে নিলেন তারই ছেলে আহনাফ তাজোয়ার। বাবার মতোই তিনিও গিটারে ঝড় তুললেন। গাইলেন, কাঁদলেন আর কাঁদালেন হাজার হাজার দর্শককে। আইয়ুব বাচ্চু পুত্র আহনাফ যখন মঞ্চে গিটার কাঁধে নিয়ে দাঁড়ালেন তখন চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে উপস্থিত হাজার হাজার দর্শক করতালি মধ্য দিয়ে তাকে স্বাগত জানান। এ সময় আহনাফ তাজোয়ার বলেন, ‘আমার বাবা নেই। আজ এমনভাবে আমরা সবাই মিলে গাইব, যেন উপর থেকে তিনি আমাদের গান শুনতে পান। আমার বাবা আপনাদের অনেক পছন্দের একজন।’ একইসঙ্গে মঞ্চে ডাকা হয় আইয়ুব বাচ্চু কন্যা ফাইরুজ সাফারাকেও। বাবা আইয়ুব বাচ্চুকে নিয়ে ফাইরুজ বলেন, ‘আব্বুকে ছাড়া এখানে দাঁড়াতে হবে ভাবতে পারছি না। আমার খুব ইমোশনাল লাগছে। আব্বুর জন্য সবাই দোয়া করবেন।’ এবি (AB)-র মৃত্যুর পর প্রথম মঞ্চ পারফর্মে এলআরবি আইয়ুব বাচ্চুর গাওয়া জনপ্রিয় গান ‘আর বেশি কাঁদালে উড়াল দেব আকাশে’ গানটি পরিবেশন করে। এ গানের পর ব্যান্ডশিল্পী মানাম আহমেদ স্টেজে এসে আইয়ুব বাচ্চুর উদ্দেশে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এরপর ‘সেই তুমি কেন এত অচেনা হলে’ গানটি বেজে ওঠে। আর এই গানের সঙ্গে কণ্ঠ মেলান আহনাফ তাজোয়ার আইয়ুব। গান গাওয়া শেষ হলেও আহনাফ তার বোন ফাইরুজ কে জড়িয়ে ধরে কাঁদছিলেন। পরে অন্য সব শিল্পীরাও মঞ্চে উঠে আসেছেন। তাদের চোখেও পানি টলমল করতে দেখা যায়। আইয়ুব বাচ্চু প্রতিষ্ঠিত এলআরবি ব্যান্ডের ম্যানেজার শামীম আহমেদ বলেন, ‘বাচ্চু ভাইয়ের স্বপ্ন পূরণ করতে আমরা এগিয়ে যাব। এলআরবির শুরু এই চট্টগ্রাম থেকে। এই চট্টগ্রাম থেকেই আবারও এলআরবির পুনরায় জন্ম হলো।’ এলআরবি ব্যান্ডের গিটারিস্ট স্বপন বলেন, ‘৩৬ বছর পর বাচ্চু ভাইকে ছাড়া কোনও মঞ্চে গান গাইছি।’ এ কথা বলার পর কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন তিনি। ড্রামার রোমেল বলেন, ‘বাচ্চু ভাই আপনাদের সন্তান। আপনারা বাচ্চু ভাইয়ের জন্য মন থেকে দোয়া করবেন।’ পরিশেষে ‘বিদায় চট্টগ্রাম, আইয়ুব বাচ্চুর চট্টগ্রাম’ বলে কনসার্টের সমাপ্তি হয়। প্রসঙ্গত, গত ১৮ অক্টোবর সকালে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে নেয়ার পথে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান কিংবদন্তি ব্যান্ড সংঙ্গীতশিল্পী আইয়ুব বাচ্চু। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৬ বছর। যে ঘুমন্ত শহরকে জাগাবেন বলে একদিন রুপালি গিটার হাতে অলিগলিতে ঘুরে বেরিয়েছেন, সেই শহরেই চিরদিনের মতো ঘুমিয়ে আছেন কিংবদন্তি সঙ্গীতশিল্পী আইয়ুব বাচ্চু। তার শেষ ইচ্ছা অনুযায়ী মায়ের কবরের পাশে দাফন করা হয়েছে তাকে।