বিশ্বকাপে ভক্তদের জন্য টিকিট কিনছে বিসিবি

ক্রিকেট

এবছর মাঝামাঝিতে ইংল্যান্ডে বসতে যাচ্ছে ক্রিকেট বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় টুর্নামেন্ট আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ। বিশ্বকাপের জন্য প্রায় আড়াই কোটি টাকা দিয়ে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের কাছে থেকে ম্যাচের টিকিট কিনতে যাচ্ছে বিসিবি। বিশ্বকাপে বাংলাদেশের জনপ্রিয়তা এবং ভোক্তাদের চাহিদা মেটাতে এই বড় অঙ্কের টাকার টিকিট কিনছে বেশি।

এমনটাই জানিয়েছে বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন। তবে এটাই নতুন নয় এর আগে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতেও মোটা অংকের টাকা দিয়ে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের কাজ থেকে টিকিট কিনে ছিল বিসিবি। তবে টিকিটের মূল্য থেকে অনেক বেশি দিতে হচ্ছে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডকে। তাই চড়া মূল্য দিয়ে শিবির কাছ থেকে টিকিট কিনতে হবে বিসিবিকে।

টিকিট কেনার ইস্যুতে নিজাম উদ্দিন চৌধুরী বলেছেন, ‘বিশ্বকাপের টিকিট কেনার বিষয়ে বোর্ডের নীতিগত অনুমোদন আছে। বিসিবি যেহেতু ন্যাশনাল বোর্ড, বোর্ডের কাছে অনেকেই টিকিট চাইতে পারে। এটাই স্বাভাবিক। বোর্ডের কাছে চাইবেই। কারণ বোর্ডই টিকিটের সোর্স।’

বিসিবি ২০১৭ সালের ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত হয়ে যাওয়া চ্যাম্পিয়নস ট্রফির টিকিটও এভাবে কিনেছিল। ইসিবির কাছ থেকে প্রায় সাত গুণ দামে ৩৫ লাখ ৩৩ হাজার টাকার টিকিট কিনেছিল বিসিবি।

বিসিবি প্রধান নির্বাহীর ভাষায়, ‘প্রিমিয়ার, প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় বিভাগ ক্রিকেট লিগ মিলিয়ে বিসিবির অধীনে ক্লাবই আছে ৭২টি। তাদেরও টিকিট প্রাপ্য। এখন প্রতিটি ক্লাবকে একটি করে টিকিট দিলেও তো ৭২টি। ইংল্যান্ডে টিকিটের যে দাম, তাতে এর মূল্যও কম নয়!’

‘রাজনৈতিক চাপই শুধু নয়। বাংলাদেশের ক্রিকেট এখন যে পর্যায়ে গিয়েছে, অনেকেই আমাদের দলের খেলা দেখতে আগ্রহী। যাদের ইংল্যান্ডে যাওয়ার সামর্থ্য আছে, তারা সবাই খেলা দেখতে চাইবে। কেউ যখন খেলা দেখতে যাবে বলে সিদ্ধান্ত নেয়, তখন বোর্ডকেই অবলম্বন ভাবে।

তখন ভাবে, ‘বোর্ডের মাধ্যমেই চেষ্টা করে দেখি।’ সেটিই হয়তো হবে।’’ সেটি হবে ধরে নেওয়াই সোয়া ২ কোটি টাকার টিকিট কেনার সিদ্ধান্তের প্রভাবক, ‘পরে যাতে টিকিটের চাপটা সামাল দেওয়া যায়, সেজন্যই আগেভাগে কিনে রাখার চিন্তা।’