পেকুয়ায় ভুল চিকিৎসায় প্রাণ গেল নবজাতকের

অপরাধ ও দুর্নীতি চট্টগ্রাম নারী ও শিশু

মো. হিজবুল্লাহ, পেকুয়া প্রতিনিধি: কক্সবাজারের পেকুয়ায় নার্সের ভুল চিকিৎসায় গর্ভজাতকালীন সন্তানের মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বুধবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে পেকুয়া বাজার প্যান ইসলামিক হাসপাতালে মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটে। এতে মা পপি আক্তারকে আত্মীয়রা মুমূর্ষ অবস্থায় পেকুয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে রোগীর অবস্থা আশংঙ্কাজনক হওয়ায় চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। মুমূর্ষ পপি আক্তার বারবাকিয়া ইউনিয়নের বারাইয়্যাকাটা এলাকার মোঃ রহিমের স্ত্রী।

পপি আক্তারের স্বামী মোঃ রহিম বলেন, আমার স্ত্রীর প্রসব বেদনা শুরু হলে প্রাথমিক ভাবে পেকুয়া বাজারস্থ প্যান ইসলামিক হাসপাতালের নার্স শাহারু বেগমের কাছে নিয়ে যায়। সে প্রাথমিক ভাবে দেখা শুনা করে বলে কোথাও নিয়ে যেতে হবে না, এখানে নরমালে হয়ে হবে। তার কথার উপর ভিত্তি করে আর কোথাও যায়নি।

দিন যতই ঘনিয়ে আসছে আমার স্ত্রীর বেদনা বাড়তে থাকে। অন্যত্র নিয়ে যেতে চাইলে সে বিভিন্ন ভাবে আশ্বাস দিতে থাকে। সর্বশেষ আমার স্ত্রীর প্রসবকৃত বাচ্চাটি মৃত বলে ঘোষণা করেন। এবং আমার স্ত্রীর প্রচুর রক্তক্ষরণ ও তার অবস্থা অবনতি হওয়ায় চট্টগ্রাম মেডিকেল নিয়ে যায়।

এবিষয়ে জানতে চাইলে নার্স শাহারু বেগম বলেন, আমার কাছে তারা যখন আসে আমি প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে থাকি। বাচ্চার হার্টভিট খুবই দূর্বল ছিল। এবং পানি শূণ্যতার কারণে বাচ্চাটির মৃত্যু হয়। চিকিৎসার কোন ত্রুটি ছিলনা।

প্যান ইসলামিক হাসপাতালের পরিচালক বেলাল উদ্দিন বলেন, আমরা আমাদের কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়েছি অনেক আগে থেকে। শাহারু এলাকার গরিব মহিলাদেরকে প্রাথমিক সেবা দিয়ে যাচ্ছে। তবে বাচ্চা ডেলিভারি করার অনুমতি তার নেই। তারপরও নার্স শাহারু ভুল বসত ডেলিভারি করেছে এ ঘটনাটি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।