ধামরাইয়ে মহাসড়কের পাশেই লাইসেন্সবিহীন ইটভাটা

ঢাকা

মোঃ আল মামুন খান, ধামরাই প্রতিনিধি: ঢাকার ধামরাইয়ে সরকারি বিধি অমান্য করে মহাসড়ক লাগোয়া ইটভাটা চুটিয়ে ব্যবসা করে যাচ্ছে। উপজেলার সোমভাগ ইউনিয়নের ডাউটিয়া এলাকায় ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের পাশ ঘেষে সদম্ভে উঁচু চিমনি নিয়ে বিষাক্ত ধোঁয়া উদগীরণ করে চলেছে মেসার্স এ এইচ খান এন্ড কোং নামের ইটভাটাটি।

সরেজমিন দেখা গেছে, ডাউটিয়া এলাকায় মহাসড়ক এবং পেট্রোল পাম্প এর সাথে বিশাল এই ইটের ভাটা। এর মালিক মোঃ আঝহারুল হক খান। ম্যানেজার রেজাউল করিম খান। বিস্ময়ের ব্যাপার হলো, শ্রেফ ইউনিয়ন পরিষদের ট্রেড লাইসেন্স সম্বল করে ভাটার কার্যক্রম চলছে। ট্রেড লাইসেন্স নং ০০০৩০১। ভ্যাটের কাগজ দেখা গেছে ( ১-১১৩৩-০০৩৫-০৩১১)। তবে এদের জেলা প্রশাসকের লাইসেন্স (১৪৫/২০১১-২০১২) এর মেয়াদ শেষ হয়েছে গত ০৮-০১-২০১৮ ইং তারিখে। এরপর আর নবায়ন করা হয় নাই। তবে ম্যানেজার জানান লাইসেন্স নবায়নের আবেদন করা হয়েছে।

এদের পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্রের মেয়াদ শেষ হয়েছে গত ২৮ মার্চ, ২০১৮ ইং তারিখে। কিন্তু নতুন করে আর নেয়া হয়নি ছাড়পত্র। দিব্যি প্রশাসনের নাকের ডগায় চলছে ইট তৈরী কার্যক্রম। এভাবে জেলা প্রশাসকের লাইসেন্স, পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র এবং মহাসড়ক থেকে নিষিদ্ধ দূরত্ব বজায় না রেখেই চলছে এই ইটভাটার কার্যক্রম।

ইটের সাইজ দৈর্ঘ্য, প্রস্থ ও উচ্চতায় যথাক্রমে ২৩ সে.মি, ১১ সে.মি ও ৬.৭ সে.মি। মল্ডিং টেস্ট পরীক্ষায় এদের ইট মোটামুটি মানের ভালো পাওয়া গেছে।

ইটের ভাটার পূর্ব পাশে জনবসতি এবং কৃষিজমির অবস্থান দেখা গেছে। স্থানীয় এক অধিবাসী জানান, ইটের ভাটার কারণে তাদের ফলের গাছে আগের মত ফল হয়না, ছেলেমেয়েদের ঠিকমত বিকাশ হচ্ছে না। এসব ব্যাপার উল্লেখ করে প্রশাসনের দ্রুত হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি।