বিমার ছুঁড়ে নিষিদ্ধ রবিউল

খেলাধুলা

নিজের বোলিং কোটা পুরো শেষ করতে পারেননি। শেষ ওভারে তিন বল করার পর আম্পায়ার পেসার রবিউল হককে আর বোলিংই করতে দেননি। বাকি তিন বল করে দেন ক্যামেরন ডেলপোর্ট। অনেকে ম্যাচের আকস্মিকতা বুঝতে পারেননি। কারণটা আর কিছু নয় ব্যাটসম্যানকে লক্ষ্য করে দুটি বিমার ছোঁড়ার অপরাধে আম্পায়ার তাকে বাকি সময়টুকু বোলিংয়ে নিষিদ্ধ করেন। এবারের বিপিএলে এটি প্রথম ঘটনা।

১৮ নম্বর ওভারে রাজশাহী কিংসের ব্যাটসম্যান জঙ্কারকে ফুলটস বল করেন। তবে শরীর ধেঁয়ে আসা সেই বল সামাল দিতে না পেরে প্রায় মাটিতে পড়েই গিয়েছিলেন জঙ্কার। আম্পায়ার নো বলের ইশারা দেন। সেই সঙ্গে রবিউলকে ডেকে সাবধান করে দেন, ম্যাচে দ্বিতীয়দফা এমন বল করলে তাকে বোলিং থেকে নিষিদ্ধ করা হবে।

রাজশাহীর ইনিংসের শেষ ওভার করতে এসে সেই একই ভুল করেন রবিউল। সেই ওভারে তার প্রথম দুই বলে জঙ্কার দুটি বিশাল ছক্কা হাঁকান। তৃতীয় বলে দুই রান নেন। চতুর্থ বলটা এলোমেলো ভঙ্গিতে ওয়াইড দিলেন রবিউল। বাড়তি বলটা করতে এসে সোজা জঙ্কারের মাথা লক্ষ্য করে বল করলেন। তবে সেই বলে ঠিকই ব্যাট লাগিয়ে ফাইন লেগের ওপর দিয়ে ছক্কা হাঁকালেন তিনি।

কিন্তু স্কয়ার লেগ আম্পায়ার নো বলের ইশারা দিলেন। রবিউলের বলটা বিমার ছিল। আম্পায়ার এসে রবিউলকে জানিয়ে দিলেন-‘তুমি আর বল করতে পারবে না।’

সেই ওভারের বাকি তিন বল করে ক্যামেরুন ডেলপোর্ট। ম্যাচে রবিউল হকের ৩.৩ ওভারে খরচ হলো ৪৭ রান! ইকোনোমি রেট ১৩.৪২! চট্টগ্রামে সময়টা ভালো যাচ্ছে না রবিউলের। আর দুটি বিমার ছোঁরার অপরাধে বোলিং থেকেই হলেন নিষিদ্ধ। পরের ম্যাচে একাদশ থেকে জায়গা হারাতে পারেন রবিউল।