১৭, জুলাই, ২০১৮, মঙ্গলবার | | ৪ জ্বিলকদ ১৪৩৯

ক্রিস ব্রাউনের বাড়িতে আমাকে লাগাতার ধর্ষণ করেছে

আপডেট: মে ১২, ২০১৮

ক্রিস ব্রাউনের বাড়িতে আমাকে লাগাতার ধর্ষণ করেছে

মার্কিন রকস্টার ক্রিস ব্রাউনের বাড়িতে তার বন্ধু র‌্যাপ গায়ক লোয়েল গ্রিসম জুনিয়র ওরফে ইয়ং লোর লাগাতার ধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন এক যুবতী।

বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেস পুলিশের কাছে এ অভিযোগ করেছেন তিনি।

ওই যুবতীর অভিযোগ, গত বছর ২৩ ফেব্রুয়ারি ওয়েস্ট হলিউডের একটি নাইটক্লাবে গিয়েছিলেন তিনি। সেখানে ক্রিস ব্রাউন, তার বন্ধু র‌্যাপ গায়ক লোয়েল গ্রিসম জুনিয়র এবং ক্রিসের এক বান্ধবীর সঙ্গে পরিচয় হলে তাদের সঙ্গে একটি রেকর্ডিং স্টুডিওতে গিয়েছিলেন তিনি।

স্টুডিওতে পৌঁছাতেই তার মোবাইল কেড়ে নেন তারা। ফোন ফেরত পেতে হলে ক্রিসের বাড়িতে যেতে হবে বলে তারা জানান। পরে ক্রিসের বাড়ি যেতেই তাকে আটক করে ফেলেন ক্রিস, লোয়েল এবং তাদের বান্ধবী।

ওই যুবতীর বাধা সত্ত্বেও তার সঙ্গে যৌন সংসর্গ করে লোয়েল এবং তার বান্ধবী। তার পর তাকে আটকে রেখে লাগাতার ধর্ষণ করে লোয়েল। তিনি পালানোর চেষ্টা করলে ক্রিস তাকে বন্দুক দিয়ে মেরে ফেলার ভয় দেখান।

যুবতীর আরও অভিযোগ, ক্রিসের বাড়িতে অনেক যুবতীকে তিনি দেখেছেন, যারা প্রত্যেকেই কোকেন ও মারিজুয়ানায় আচ্ছন্ন। ক্রিসের কাছে প্রচুর আগ্নেয়াস্ত্রও রয়েছে বলে অভিযোগ তার।

এদিকে ওই যুবতীর মা মেয়েকে না পেয়ে পুলিশে অভিযোগ করেন। পুলিশ যুবতীর মোবাইলের লোকেশন ট্র্যাক করে ক্রিসের বাড়িতে সেটির সন্ধান পায়। কিন্তু পুলিশ সেখানে তল্লাশি চালাতে গেলে ক্রিস তাদেরও বন্দুক নিয়ে হুশিয়ারি দেন। পরে কোনোক্রমে ওই যুবতী ক্রিসের বাড়ি থেকে পালিয়ে গিয়ে পুলিশে ক্রিস এবং লোয়েলের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন।

যুবতীর আইনজীবী গ্লোরিয়া অলরেড জানান, গত বছর ২৩ ফেব্রুয়ারি থেকে পুরো ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। ক্রিসের আইনজীবী মার্ক গেরাগস জানান, ক্রিসের মতো বড় গায়কের সুনাম নষ্ট করতেই এ ষড়যন্ত্র। ইতিমধ্যে তার কাছে মামলা নিষ্পত্তির জন্য ১৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার দাবি করেছেন বলেও পাল্টা অভিযোগ করেন গেরাগস।