জাবি প্রেস ক্লাবের ৭ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত

শিক্ষা

মোঃ রায়হান চৌধুরী, জাবি প্রতিনিধি: প্রতিষ্ঠার ৭ম বছর অতিবাহিত করে ৮ম বছরে পদার্পণ করলো মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের সংগঠন “জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রেস ক্লাব (জেইউপিসি)”। সোমবার দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখতে পালন করা হয় ৭ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী। এ উপলক্ষে সকাল ১১ টায় জেইউপিসির নিজস্ব কক্ষে কেক কাটার মাধ্যমে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর উদ্বোধন করেন বিশেষ অতিথি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক শেখ মনজুরুল হক।

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলিন, সরকার ও রাজনীতি বিভাগের অধ্যাপক বশির আহমেদ, নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের শিক্ষক ও সহকারি প্রক্টর মহিবুর রৌফ শৈবাল, জেইউপিসির উপদেষ্টা জনাব কে.এম আক্কাছ আলী, সভাপতি দীপঙ্কর দাস, সাধারণ সম্পাদক আবু তাহের এবং বিশ্ববিদ্যালয় কর্মরত সাংবাদিকরা সহ বিভিন্ন ছাত্র সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
বিশেষ অতিথির ভাষণে শেখ মনজুরুল হক বলেন, সাংবাদিকদের সংগঠন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রেস ক্লাব বস্তুুনিষ্ঠ ও গঠনমূলক সংবাদ পরিবেশনের মাধ্যমে দেশ ও জাতির কাছে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি উজ্জ্বলভাবে তুলে ধরে আসছে। আগামীতেও এ অগ্রযাত্রা অটুট থাকুক। প্রেস ক্লাব সদস্যদের জন্য শুভ কামনা।

উপদেষ্টা কে.এম আক্কাছ আলী তাঁর বক্তব্যে বলেন, মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের সংগঠন জাবি প্রেস ক্লাব সত্য প্রকাশের মাধ্যমে সামনে আরো এগিয়ে যাক। বস্তুুনিষ্ঠ ও গঠনমূলক সংবাদ পরিবেশন করে প্রেস ক্লাব যেভাবে এগিয়ে চলেছে তা ভবিষ্যতে বজায় থাকুক।

জেইউপিসির সভাপতি দীপঙ্কর দাস বলেন, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে সহযোগিতার মাধ্যমে শৃঙ্খলা রক্ষায় জাবি প্রেস ক্লাবের সাংবাদিকরা সদা সচেষ্ট। দেশবাসীর কাছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করতে নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছে জাবি প্রেস ক্লাবের সাংবাদিকরা। এই নিরলস সংবাদকর্মীদের হাত ধরেই জাবি প্রেস ক্লাব পদার্পণ করল ৮ম বর্ষে। জাবি প্রেস ক্লাবের ৭ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে এই সংবাদকর্মীদের জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা। জাবি প্রেস ক্লাবের উত্তরোত্তর সমৃদ্ধিতে সংবাদকর্মীরা আরো আন্তরিক হবে এটাই প্রত্যাশা।

সাধারণ সম্পাদক আবু তাহের বলেন, প্রেস ক্লাবে কর্মরত সাংবাদিকরা গঠনমূলক সংবাদ পরিবেশনের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়কে প্রতিনিধিত্ব করছে। আমাদের সত্য প্রকাশের কাজে সবার সহযোগিতা চাই।

এরপর প্রেস ক্লাবের সভাপতি দীপাঙ্কর দাস ও সাধারণ সম্পাদক আবু তাহেরের নেতৃত্বে বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত প্রায় অর্ধশতাধিক সাংবাদিক সদস্যর অংগ্রহণে একটি ব্যতিক্রমধর্মী রিক্সা আনন্দ র‌্যালী বের করা হয়। র‌্যালীটি বিশ্ববিদ্যালয়ের অমর একুশে চত্ত্বর থেকে শুরু হয়ে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার, কলা ও মানবিক অনুষদ, নতুন ও পুরাতন প্রশাসনিক ভবন, চৌরঙ্গী মোড় হয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্র শিক্ষক মিলনায়তনের সামনে এসে শেষ হয়। পরে একটি প্রীতি ক্রিকেট ম্যাচ সম্পাদনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানটির সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।