আজ সোমবার সকাল ৮:৫১, ২১শে আগস্ট, ২০১৭ ইং, ৬ই ভাদ্র, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২৮শে জিলক্বদ, ১৪৩৮ হিজরী

যে কারণে কলা এত পছন্দ সোনাক্ষীর!

নিউজ ডেস্ক | বার্তা বাজার .কম
আপডেট : মার্চ ১১, ২০১৭ , ১:৪৬ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : বিনোদন
পোস্টটি শেয়ার করুন

‘দাবাং গার্ল’ সোনাক্ষী সিনহার প্রিয় ফল কি জানেন? এই নায়িকার প্রিয় ফল হলো কলা। ভাবছেন এত দামি ফল থাকতে হঠাৎ করে তার এই সাধারণ ফল কেন পছন্দ?

মূলত, শুষ্ক ত্বক সারানো থেকে চুলের ঔজ্জ্বল্য বাড়িয়ে তোলা বা শরীর থেকে ফ্যাট কমানো‚ কলা সব কিছু করতে পারে। খুব কম ফলই আছে যা কলার মতো সর্বগুণ সম্পন্ন। যার কারণেই সোনাক্ষীর কলা এতো পছন্দ। জেনে নিন কলার বিশেষ কিছু গুণাগুণ :

১) ত্বককে নরম এবং হাইড্রেটেড রাখে: কলাতে ভিটামিন বি৬ আর ভিটামিন সি আছে। এছাড়াও এতে উচ্চ পরিমাণে পানি আছে। এইসবের ফলে আমাদের ত্বক হাইড্রেটেড থাকে। এছাড়াও কলাতে উপস্থিত নিউট্রিয়েন্টস ত্বকের ইলাসটিসিটি বজায় রাখে। তাই রোজ নিজের ডায়েটে কলা রাখুন। শুষ্ক ত্বকের যদি সঙ্গে সঙ্গে আদ্রতা ফেরাতে চান তাহলে অল্প কলা চটকে মুখে লাগিয়ে নিন। ৩০ মিনিট রেখে হল্কা গরম জলে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

২) সে গুডবাই টু এজিং: কলা শরীরকে সুরক্ষা দেয় Free Oxygen Radicals এবং বলিরেখার হাত থেকে। অনেকেই জানেন না কলার খোসা দিয়ে খুব সহজেই মুখের বলি রেখা কমিয়ে ফেলা যায়। এর জন্য খুব একটা কসরতও করতে হবে না আপনাকে। শুধুমাত্র কলা খেয়ে খোসাটা ফেলে না দিয়ে তা মুখের ওপর ঘষে নিন। ১৫ মিনিট রাখার পর ঠান্ডা পানি ধুয়ে ফেলুন। এছাড়াও অল্প একটু কলা চটকে তাতে কয়েক ফোঁটা গোলাপ জল ভালো করে মিশিয়ে তাও মুখে লাগাতে পারেন। এই ফেস প্যাক ৩০ মিনিট লাগিয়ে রেখে ধুয়ে ফেলতে হবে।

৩) ফুট কেয়ার : পা ফাটা খুব সহজেই সারিয়ে তোলে পাকা কলা। দুটো কলা ভালো করে চটকে ১০ মিনিট ভালো করে পায়ের গোড়ালি এবং ফাটা অংশে লাগিয়ে রাখুন। সপ্তাহে চারদিন এটা করতে হবে। কয়েকদিনের মধ্যেই ফারাক দেখতে পাবেন।

৪) পাফি আইজ ঠিক করে: কলাতে উচ্চ পরিমাণে পটাসিয়াম থাকায় চোখের তলার ফোলা ভাব ঠিক করে দিতে পারে। এর জন্য এক টুকরো কলা চটকে চোখের তলার ফোলা অংশের ওপর লাগান। ১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। শুধুমাত্র কলার খোসা রাখলেও সুফল পাবেন।

৫) অ্যাকনে আর পিম্পল দূর করে: কালো ছোপ বা অ্যাকনে এবং ব্রণর মতো সমস্যার হাত থেকেও রক্ষা করে কলা। এর জন্য এক টুকরো কলার খোসা নিয়ে ব্রণ বা কালো ছোপের ওপর খুব হাল্কা করে ঘষে নিন। খোসা রং পাল্টে কালো না হওয়ে যাওয়া অবধি ঘষতে থাকুন । দিনে তিনবার এটা করুন।

৬) রেশমি এবং উজ্জ্বল চুলের জন্য: কলাতে প্রাকৃতিক তেল‚ কার্বোহাইড্রেট‚ পটাসিয়াম এবং ভিটামিন আছে। এই সব নিউট্রিয়েন্টস চুলের জন্য খুব দরকারী। নিয়মিত কলা ব্যবহার করলে চুল মজবুত হবে এবং একই সঙ্গে তা রেশমের মতো কোমল হয়ে উঠবে। এর জন্য একটা পাকা কলা চটকে তাতে অল্প একটু আমন্ড তেল মিশিয়ে চুলে লাগান। ১৫ মিনিট রাখার পর ঠান্ডা জলে ধুয়ে ফেলুন।

৭) আপনার মুডের উন্নতি ঘটায় : কলা তে Tryptophan নামের এক প্রোটিন আছে। এই প্রোটিন শরীরে Serotonin নামের একটা হর্মোন তৈরি করে যা মনকে শান্ত রাখতে সাহায্য করে। তাই যারা ডিপ্রেশনে ভুগছেন কলা তাদের জন্য খুব ভালো।

৮) রোগা হতে সাহায্য করে : কোনদিন লক্ষ্য করে দেখেছেন কী একটা কলা খেলেই অনেক্ষণ আর খিদে পায় না। এছাড়াও এই ফলে এত প্রাকৃতিক চিনি আছে যা সঙ্গে সঙ্গে এনার্জি দেয়।

৯) কোলেস্টেরল কম করে একই সঙ্গে রক্ত চাপ কমায় : কলাতে উপস্থিত পটাসিয়াম‚ ক্যালসিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়াম ব্লাড প্রেশার কম করে। এছাড়াও এতে পেক্টিন নামের একটা ফাইবার আছে যা কোলেস্টেরল কমায়।

১০) হাড় শক্ত করে : কলাতে প্রোবায়োটিক ব্যাকটেরিয়া আছে যা শরীরকে ক্যালসিয়াম অ্যাবসর্ব করতে সাহায্য করে। এছাড়াও কলাতে উপস্থিত পটাসিয়াম শরীর থেকে ক্যালসিয়াম বেরিয়ে যেতে দেয় না।

১১) সহজেই হজম করতে সাহায্য করে : কলাতে Fructooligosaccharide আছে যা পেটে ভালো ব্যাকটেরিয়া উৎপাদন করে। এর ফলে হজম শক্তি বাড়ে।