১৬, জানুয়ারী, ২০১৯, বুধবার | | ৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪০

বই না পড়ায় অপরাধে জড়াচ্ছে যুব সমাজ

আপডেট: জানুয়ারি ১৪, ২০১৯

বই না পড়ায় অপরাধে জড়াচ্ছে যুব সমাজ

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বলেছেন, ‘এখন অনেক শিক্ষিত ব্যক্তিই বই কেনেন না। অনেকে আবার সংগ্রহে থাকা বইও পড়েন না। দিন দিন বই পড়ার আগ্রহ হারিয়ে যাচ্ছে বলেই যুব সমাজ নানা অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে।’

সোমবার সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সপ্তাহ ব্যাপি বই মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘ব্যক্তি ও সমাজকে শিক্ষার আলোয় আলোকিত করতে এবং সমাজকে উন্নত করতে বই ও পাঠাগারকে গুরুত্ব দিতে হবে। একটা সভ্যতাকে ধ্বংস করতে মহা কোনো পরিকল্পনার প্রয়োজন নেই। এ সভ্যতার সব গুলো বই পুড়ে ফেলারও কোনো দরকার নেই। শুধু মানুষকে বই পড়া থেকে বিরত রাখতে পারলেই এমনি এমনিই সভ্যতা ধ্বংস হয়ে যাবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘বই মানুষের জীবনের পরিধি বাড়ায়। বই জ্ঞানার্জনের প্রধান মাধ্যম। জ্ঞানের প্রকৃত ধারক ও বাহক। আসুন সবাই মিলে বই কিনি, বই পড়ি এবং প্রিয়জনকে বই উপহার দেই। বই আমাদের আলোকিত মানুষ হতে সহায়তা করবে।’ আইন শিক্ষার পাশাপাশি বিচারক ও আইনজীবীদের বিজ্ঞান, সাহিত্য, কাব্যসহ নানা বিষয়ে জ্ঞানার্জন করা জরুরি বলেও মন্তব্য করেন প্রধান বিচারপতি।

তিনি বলেন, ‘বই হতে লব্ধ জ্ঞান উন্মোচন ঘটায় নবদিগন্তের, মানুষকে সচেতন করে দায়-দায়িত্ব সম্পর্কে এবং বদলে দিতে পারে মানুষের জীবনের দৃষ্টিভঙ্গিকে।’

অনুষ্ঠানে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন ও সম্পাদক ব্যারিস্টার এএম মাহবুব উদ্দিন খোকনও বক্তব্য দেন। এ সময় সুপ্রিম কোর্ট ও হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতিরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান বিচারপতি ফিতা কেটে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির বই মেলা উদ্বোধন করেন। পরে মেলার বিভিন্ন স্টল ঘুরে দেখেন তিনি। এবারের বই মেলায় ৪৮টি স্টল বসেছে। মেলায় আইনের বইয়ের পাশাপাশি রয়েছে বিভিন্ন ধরনের বই।