১৮, জানুয়ারী, ২০১৯, শুক্রবার | | ১১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪০

পুলিশের এসপি পরিচয়ে সাংবাদিকের সাথে প্রতারণা; প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা

আপডেট: জানুয়ারি ১২, ২০১৯

পুলিশের এসপি পরিচয়ে সাংবাদিকের সাথে প্রতারণা; প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা

নিজস্ব প্রতিবেদক: ফেসবুকে নিজেকে পুলিশের এসপি পরিচয় দিয়ে আইডি খুলে অভিনব পদ্ধতিতে প্রতারণা করে চলেছে এক ব্যক্তি! নিজেকে পুলিশ হেড কোয়ার্টারে কর্মরত এসপি পরিচয় দিয়ে আজকের ডাক’র সম্পাদক ও বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের সাধারন সম্পাদক, আবুল কালাম আজাদের সাথে ফেসবুকে পরিচিত হয় মেহেদি হাসান নামের এক প্রতারক। পরিচয়ের শুরু থেকে আবুল কালাম আজাদের বিষয়ে খোঁজ খবর নিতে থাকে এবং তার উপকার করার আগ্রহ প্রকাশ করে বারবার। নানাভাবে মোটিভেশনাল কথাবার্তা বলে সাংবাদিক আজাদের সাথে সখ্যতা গড়ে তোলে এই প্রতারক। এক পর্যায়ে অনলাইনে ওয়াদুদ নামের এক ব্যক্তি কর্তৃক প্রতারিত হন আবুল কালাম আজাদ এবং কথিত এসপির সরনাপন্ন হন তিনি।

এসপি পরিচয় দানকারী মেহেদী হাসান প্রতারককে ধরবেন ও টাকা উদ্ধার করে দিবেন বলে আশ্বাস দেন এবং খরচের জন্য বিকাশের মাধ্যমে চল্লিশ হাজার টাকা নেন। টাকা নেয়ার পর থেকে মেহেদী হাসান বিভিন্ন অযুহাতে কালক্ষেপন করে তিন মাস অতিক্রম করেন এবং এখন আর যোগাযোগ রাখছেননা। ততক্ষনে সাংবাদিক আবুল কালাম আজাদ বুঝে ফেলেন এসপি পরিচয় দানকারী আসলে একজন প্রতারক। বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর সুনাম ক্ষুন্নকারী এ প্রতারকের শাস্তি দাবী করে সাংবাদিক আবুল কালাম আজাদ বলেন, দেশ ও মানুষের কল্যাণে বাংলাদেশ পুলিশের অবদান অপরিসীম। আমাদের পুলিশ বাহিনী আমাদের গর্ব, আমাদের অহংকার, বাংলাদেশ পুলিশের সুনাম ও অর্জনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে একশ্রেণীর প্রতারক পুলিশের নামে ফেসবুকে ফেইক আইডি খুলে সহজ সরল মানুষের সাথে প্রতারণায় লিপ্ত হচ্ছে। অবিলম্বে এদেরকে চিহ্নিত করে, আইনের আওতায় এনে শাস্তি দেয়া দরকার, তা না হলে পুলিশ বাহিনীর প্রতি সাধারন মানুষের আস্থা বিনষ্ট হবে।