১৮, জানুয়ারী, ২০১৯, শুক্রবার | | ১১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪০

চাপাতি-চাকুসহ ভুয়া সাংবাদিক আটক

আপডেট: জানুয়ারি ৩, ২০১৯

চাপাতি-চাকুসহ ভুয়া সাংবাদিক আটক

বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল টোয়েন্টিফোরসহ স্থানীয় ও জাতীয় একাধিক গণমাধ্যমের সাংবাদিক পরিচয়ে বিভিন্ন দফতর দাঁপিয়ে বেড়ানো মো. হারুন (৩৫) নামের এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। বুধবার (২ জানুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে কক্সবাজার শহরের কাস্টমস অফিস থেকে স্থানীয় সাংবাদিকদের সহায়তায় পুলিশ তাকে আটক করে।

আটক হারুন কক্সবাজার পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের মোহাজেরপাড়া এলাকার বাসিন্দা ও পৌরসভার এক কাউন্সিলরের নিকটাত্মীয় বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

পুলিশ জানায়, আটক হারুন দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন পত্রিকা, টেলিভিশন ও অনলাইন প্রতিষ্ঠানের পরিচয়পত্র, ভিজিটিং কার্ড ও টেলিভিশনের লোগো তৈরি করে বিভিন্ন স্থানে চাঁদাবাজি করে আসছিল। সর্বশেষ বুধবার বিকেলে কক্সবাজার কাস্টমস অফিসে গিয়ে চ্যানেল-২৪ এর সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে চাঁদা দাবি করে। খবর পেয়ে চ্যানেল-২৪ এর কক্সবাজার প্রতিনিধি নুপা আলমসহ একদল সাংবাদিক গিয়ে তাকে চ্যালেঞ্জ করে এবং পুলিশকে খবর দেয়। পরে কক্সবাজার মডেল থানার এসআই আনছারুলের নেতৃত্বে পুলিশ তাকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

জানতে চাইলে চ্যানেল-২৪ এর জেলা প্রতিনিধি নুপা আলম বলেন, একটি সংঘবদ্ধচক্র দীর্ঘদিন ধরে জেলার বিভিন্ন এলাকায় আমার প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে চাঁদাবাজিসহ অবৈধভাবে সুযোগ-সুবিধা আদায় করে আসছিল। এরই ধারাবাহিকতায় আমার প্রতিষ্ঠানের ভুয়া লোগো তৈরি করে কক্সবাজার কাস্টমস অফিসে গিয়ে অবৈধভাবে দুই হাজার টাকা আদায় করে হারুন নামে ওই ব্যক্তি। পরে খবর পেয়ে আমি ও আমার সহকর্মীরা গিয়ে তাকে চ্যালেঞ্জ করি এবং ভুয়া সাংবাদিক জানতে পেরে পুলিশকে খবর দেই। একই সঙ্গে অবৈধভাবে আদায় করা টাকাও ফেরত দিতে বাধ্য করা হয়।

কক্সবাজার সদর থানার ওসি (তদন্ত) মো. খায়রুজ্জামান তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সাংবাদিকদের মাধ্যমে খবর পেয়ে এসআই আনছারুল পুলিশ নিয়ে তাকে আটক করে। পরে তার ব্যাগ তল্লাশি করে ক্যামরা, চ্যানেল-২৪ এর লোগোসম্বলিত মাইক্রোফোনসহ বিভিন্ন পত্রিকা, টেলিভিশন ও অনলাইন প্রতিষ্ঠানের পরিচয়পত্র, ভিজিটিং কার্ড উদ্ধার করা হয়। একই সঙ্গে একটি চাপাতি ও একটি চাকুও জব্দ করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে অপরাধ স্বীকার করেছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।