১৫, অক্টোবর, ২০১৮, সোমবার | | ৪ সফর ১৪৪০

যারা আমাকে আওয়ামী লীগ বলছেন, তারা মিথ্যাবাদী: আল্লামা শফী

আপডেট: অক্টোবর ১৩, ২০১৮

যারা আমাকে আওয়ামী লীগ বলছেন, তারা মিথ্যাবাদী: আল্লামা শফী

হেফাজতের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী বলেছেন, সংসদে সনদের বিল পাস করায় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানানো মানে সরকারের কাছে কওমি উলামায়ে-কেরামদেরকে বিক্রি করে দেয়া নয়। আমি আওয়ামী লীগ হয়ে যাইনি। যারা আমাকে আওয়ামী লীগ বলছেন তারা মিথ্যাবাদী। আমার কোনো রাজনৈতিক পরিচয় নেই। প্রচারিত কোনো রাজনীতিরও সঙ্গে আমি জড়িত নই।

শনিবার বিকাল ৫টায় হাটহাজারী পার্বতী মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আল আমিন সংস্থার উদ্যোগে আয়োজিত শোকরিয়া ও দোয়া মাহফিলে সংবর্ধিত অতিথির বক্তব্যে আল্লামা শাহ আহমদ শফী এসব কথা বলেন।

হেফাজত আমির আল্লামা আহমদ শফী বলেন,

কওমি মাদ্রাসা সনদের স্বীকৃতি আর হেফাজতে ইসলামের ১৩ দফা দাবির আন্দোলন এক নয়। হেফাজত কোনো রাজনৈতিক সংগঠন নয়। এটি মুসলমানদের ঈমান-আক্কিদা রক্ষার সংগ্রামের একটি বৃহত্তম ধর্মীয় সংগঠন। কোনো রাজনৈতিক লক্ষ্য হেফাজতের নেই। হেফাজত কোনো নির্বাচনে অংশগ্রণ করবে না। হেফাজত নির্বাচনে কাউকে মনোনয়ন বা সমর্থন দেয়নি এবং দেবেও না।

হাটহাজারী মাদ্রাসার সিনিয়ির শিক্ষক ও আল আমিন সংস্থার উপদেষ্টা মুফতি মাওলানা জসীম উদ্দীনের সভাপতিত্বে এবং যুগ্ম সম্পাদক মাওলানা ইব্রাহিম খলীলের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে শোকরিয়া ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিবেশ, বন ও জলবায়ুবিয়ষকমন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বলেন, আল্লামা শফী কোনো রাজনীতি করেন না। আওয়ামী লীগ হলে সর্বপ্রথম আমি জানতাম। কারণ আমি স্থানীয় সংসদ সদস্য। আমি ওনার কাছে প্রায়ই যাই। তিনি একজন সাধারণ মনের মানুষ। সারা জীবন তিনি ধর্মের জন্য কাজ করে গেছেন। আমার পিতা-মাতাও হুজুরের ভক্ত।

মন্ত্রী বলেন, আজ যে স্বীকৃতির নিয়ে কথা চলছে আমি জানি এ স্বীকৃতি এত সহজে আসেনি। স্বীকৃতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক কোনো উদ্দেশ্য নেই। তিনি নিজ দায়িত্ব থেকে এই স্বীকৃতি দিয়েছেন। তিনি একজন ধার্মিক ও দ্বীন প্রিয় মানুষ। তার দিন শুরু হয় ধর্মকর্মের মাধ্যমে।

আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বলেন, আমি অনেকবার মাদ্রাসায় গিয়েছি। কোথায়, কোনো আপত্তিকর কিছু দেখি নাই। আমি বলছি কওমি মাদ্রাসায় কোনো জঙ্গি নেই। এসব অপপ্রচার থেকে বিরত থাকুন।

অনুষ্ঠানে হাটহাজারী সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মির কফিল উদ্দিন, মাওলানা আবু তাহের নদভী, জসীমুদ্দীন নদভী, মাওলানা কুতুবুদ্দিন নানুপুরি, মাওলানা লোকমান, মাওলানা তাজুল ইসলাম, মাওলানা আনাস মাদানী, মাওলানা নূরুল ইসলাম, মাওলানা মীর ইদ্রীস, অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ শামীম, মুফতি আব্দুল আজীজ, মাওলানা শফিউল্লাহ, আহসান উল্লাহ মাস্টার, মাওলানা সরওয়ার কামালসহ জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনিক কর্মকর্তা ছাড়াও আল আমিন সংস্থার কর্মকর্তারা উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠান শেষে আল আমিন সংস্থার পক্ষ থেকে হেফাজত আমির আল্লামা আহমদ শফী ও প্রধান অতিথি পরিবেশ, বন ও জলবায়ু বিয়ষকমন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদকে সম্মাননাসূচক ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। এছাড়া আল আমিন সংস্থার পাশাপাশি প্রায় ত্রিশের অধিক সংগঠন হেফাজত আমিরকে ক্রেস্ট প্রদান করতে দেখা গেছে।