১৫, অক্টোবর, ২০১৮, সোমবার | | ৪ সফর ১৪৪০

মুরাদনগরে ১৫৩টি পূজা মন্ডপে চলছে শেষ মহুর্তের প্রস্তুতি

আপডেট: October 13, 2018

মুরাদনগরে ১৫৩টি পূজা মন্ডপে চলছে শেষ মহুর্তের প্রস্তুতি

মো: নাজিম উদ্দিন, মুরাদনগর (কুমিল্লা) সংবাদদাতা ঃ সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা শুরু হতে আর মাত্র কয়েক দিন বাকি। তাকে ঘিরে শেষ মূহুর্তের প্রস্তুতি চলছে কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলার মৃৎশিল্পীদের। ইতোমধ্যে তারা মাটির কাজ শেষ করে রং-তুলির আচরের মাধ্যমে প্রতিমা রাঙাতে ব্যাস্ত সময় অতিবাহিত করছেন।

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মতে মা দুর্গা অসুর দমনের শুভ শক্তি নিয়ে পৃথিবীতে আগমন করবেন।
এবছর পৃথীবিতে দেবীর আগমন হবে ঘোড়ায় চড়ে আর ফিরবেন দোলায়। দেবীর ঘেুাড়ায় চড়ে আগমন ঝড়-ঝঞ্ঝা ও বৃষ্টির পূবাভাস আর দোলায় গমনে বাতাসের গতি বাড়ার লক্ষন হিসেবে ব্যাখ্যা করা হয়।

মুরাদনগর উপজেলা প্রশাসন ও পূজা উদযাপন পরিষদ সূত্রে জানা যায়, আগামী ১৫ অক্টোবর পঞ্চমী পূজার মধ্যে দিয়ে শারদীয় দুর্গাপূজা উদযাপন শুরু আর ১৯ অক্টোবর প্রতিমা বিসর্জনের মধ্যে দিয়ে উৎসব সম্পন্ন হবে। এ বছর উপজেলার ২২ টি ইউনিয়নে ১৫৩টি মন্ডপে শারদীয় দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিবছরের মতো এ বছরেও মুরাদনগর উপজেলায় পূজা মন্ডপের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। প্রতিটি পূজাম-পের জন্য ৫’শ কেজি করে মোট ৭৬.৫ টন চাল বরাদ্দ করেছে করেছে সরকার।

উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন কারিগররা। শেষ মুহূর্তে মন্ডপে কেউ কাদা-মাটির তৈরিতে প্রতিমার শরীরে শৈল্পিক কারু কাজে ব্যস্ত, আবার কেউ রং তুলির আঁচড়ে প্রতিমাকে মনের মাধুরী মিশিয়ে ফুটিয়ে তুলছেন।
উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের নেতারা জানান, আনন্দ মুখর পরিবেশে মা দুর্গাকে বরণ করার সব প্রস্তুতি হাতে নেয়া হয়েছে। কোন ধরণের ঝুঁকি এড়াতে প্রশাসনের সহায়তা নেয়া হবে।

মুরাদনগর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মিতু মরিয়ম জানান, শান্তিপূর্ণ ভাবে পূজা উদযাপনকে ঘিরে বিভিন্ন পর্যায়ের নিরাপত্তার জন্য মন্দিরে মন্দিরে ও পুজা মন্ডপে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী সর্বাত্মক কাজ করবে। এয়াড়া মোবাইল কোর্ট, প্রতিটি পূজা ম-পে আলাদা নিরাপত্তা ব্যাবস্তা, ভিজিল্যান্স টিম, পুলিশ ও আনসার মোতায়েন থাকবে।