২১, অক্টোবর, ২০১৮, রোববার | | ১০ সফর ১৪৪০

যা মেনে চলতে হবে দৌড়াতে গেলে

আপডেট: অক্টোবর ১১, ২০১৮

যা মেনে চলতে হবে দৌড়াতে গেলে

রক্তসঞ্চালন ও হৃদযন্ত্র সচল রাখার জন্য দৌড়ানোকে সবচেয়ে কার্যকর ব্যায়াম হিসেবে ধরা হয়। ব্যায়াম শরীরকে ফিট, সুস্থ এবং সুগঠিত করে তোলে।

সেই সঙ্গে সদা সতর্ক ও মনোযোগী করে তোলে মানুষকে। সকালে দৌড়ালে নীরব প্রভাত এবং প্রকৃতির সৌন্দর্য মনকে প্রফুল্ল করে তোলে।

এজন্য বাড়তি অর্থ খরচ করতে হয় না। শুধু ইচ্ছাটুকু থাকলেই প্রতিদিন নির্দিষ্ট সময় দৌড়ে সুস্থ থাকতে পারেন। তবে দৌড় শুরু করতে গিয়ে অনেকেই না জেনে বেশকিছু ভুল করেন। এতে সুস্থ থাকার চেয়ে বরং অসুস্থ হওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যায়।

আসুন জেনে নেই দৌড়ানোর মাধ্যমে সুফল পেতে এ বিষয়গুলো মেনে চলুন…

অতিরিক্ত দৌড়াবেন না

নতুন দৌড় শুরু করতে গিয়ে বেশিরভাগই একবারে সব কাজ সারতে চান। এজন্য শুরুতেই দীর্ঘ সময় দৌড়ে বেশি দূরত্ব অতিক্রম করতে চান তারা।এটা মোটেই ইতিবাচক কিছু নয়। আপনাকে ধীরে ধীরে সময় ও দূরত্বের পরিমাণ বাড়াতে হবে। বিশেষজ্ঞরা সিএনএনকে বলেন, প্রতি সপ্তাহে ১০ শতাংশের বেশি দূরত্ব বাড়ানো উচিত নয়।

পর্যাপ্ত বিশ্রাম নিতে হবে

নতুনরা অনেকে ভাবেন, প্রতিদিনই তাদেরকে দৌড়াতে হবে। এই ধারণা ভুল। ওজন কমাতে এবং স্বাস্থ্য ঠিক রাখতে নিয়ম মেনে দৌড়ালেই হয়। একটা বিষয় মনে রাখতে হবে, দৌড় আপনার শরীরের ওপর অনেক বেশি প্রভাব ফেলবে। এজন্য পর্যাপ্ত বিশ্রাম রেখে দৌড়ের রুটিন ঠিক করুন।

অযথা অন্যের সাথে নিজের তুলনা করবেন না

অনেকে দৌড় শুরু করার পরপরই অভিজ্ঞদের অনুসরণ করতে থাকেন। এটা একদিক থেকে ভালো হলেও কিছুক্ষেত্রে আপনার জন্য নেতিবাচক হতে পারে। এজন্য অনুসরণের বিষয়গুলো ঠিক করে নিতে হবে। যিনি দীর্ঘ সময় ধরে অনুশীলন করে এসেছেন তার সাথে সময় ও দূরত্ব বিষয়ে নিজের তুলনা করবেন না। কারণ, শুরুতে তিনিও আপনার মতো অল্প করে দৌড়েই এ পর্যায়ে এসেছেন।

ব্যাথা নিয়ে দৌড়াবেন না

নতুন দৌড় শুরু করতে গিয়ে অনেকে প্রথমদিকে একটু অস্বস্তিতে পরতে পারেন। এটা খুবই স্বাভাবিক। কিন্তু দৌড়ানোর কারণে ব্যাথা অনুভব করলে বিশ্রাম নিতে হবে। মনে রাখবেন, অস্বস্তি আর ব্যাথা এক জিনিস নয়। ব্যাথা অনুভব করলে এটা সারানোর জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে তারপর আবার দৌড় শুরু করা উচিত।