২৩, অক্টোবর, ২০১৮, মঙ্গলবার | | ১২ সফর ১৪৪০

পুলিশ পেটানো ছাত্রলীগ কর্মী গ্রেফতার

আপডেট: অক্টোবর ৭, ২০১৮

পুলিশ পেটানো ছাত্রলীগ কর্মী গ্রেফতার

চট্টগ্রাম নগরীতে উল্টোপথে আসা মোটরসাইকেল থামানোর কারণে পুলিশের এক সার্জেন্টকে মারধরের ঘটনায় অভিযুক্ত আদর (২৫) নামে এক ছাত্রলীগ কর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

আজ (রোববার) সকালে নগরের সদরঘাট থানার নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

কোতোয়ালি থানার ওসি মোহাম্মদ মহসিন জাগো নিউজকে বলেন, ‘গত আগস্ট মাসে নগরের নিউ মার্কেট মোড়ে উল্টোপথে আসা মোটরসাইকেল থামানোয় সার্জেন্ট মাজহারুল আলম সোহাগকে মারধর করে কিছু বখাটে। এসময় তারা নিউমার্কেট মোড় পুলিশ বক্সে গিয়ে পুলিশ সদস্যদেরও লাঞ্ছিত করে। ওই ঘটনায় আদরসহ ছয়জনের নাম উল্লেখ করে ও আরও ৪০ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করে মামলা করেন সার্জেন্ট মাজহারুল আলম সোহাগ।’

‘আজ ভোরে সদরঘাট থানা এলাকায় আদরের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। যারা ওই দিন পুলিশ সার্জেন্টকে মারধর করেছেন তারা সবাই ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত জানা গিয়েছিলে। আসামিদের বিরুদ্ধে সরকারি কাজে বাধা দেয়াসহ দণ্ডবিধির ১৪৩, ১৮৬, ৩৩২, ৩৫৩, ৩০৭ ও ৪২৭ ধারায় অভিযোগ আছে। আমাদের কাছে অপরাধীর সংজ্ঞা অপরাধীই। তার পারিবারিক, সামাজিক কিংবা রাজনৈতিক কোনো পরিচয়ই আমাদের কাছে বিবেচ্য নয়,’বলেন ওসি মোহাম্মদ মহসিন।

উল্লেখ্য, ঘটনার দিন ফয়সাল নামে এক ছাত্রলীগ কর্মী মোটরসাইকেল চালিয়ে যাচ্ছিলেন, মিরাজ তার পেছনে মোটরসাইকেলে বসা ছিলেন। মোটরসাইকেলটি নিয়ে তারা উল্টো পথে যাওয়ায় নিউমার্কেট মোড়ে দায়িত্বরত ট্রাফিক সার্জেন্ট তাদের গাড়ি থামিয়ে মামলা দেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মেহেরাজ তার কথিত রাজনৈতিক বড় ভাইদের ফোন দিয়ে নিয়ে আসে। তারা এসে নিউমার্কেট মোড় পুলিশ বক্সে গিয়ে পুলিশ সদস্যদের লাঞ্ছিত করে। এসময় ওখানে দায়িত্বরত ট্রাফিক পুলিশ কনস্টেবল মামুনকে তারা লাঞ্ছিত করে এবং পুলিশের ইউনিফর্ম ছিঁড়ে দেয়। পরে খবর পেয়ে কোতোয়ালি থানা পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।