২২, অক্টোবর, ২০১৮, সোমবার | | ১১ সফর ১৪৪০

নীলফামারীতে তিনদিন ব্যাপী উন্নয়ন মেলা শুরু

আপডেট: অক্টোবর ৪, ২০১৮

নীলফামারীতে তিনদিন ব্যাপী উন্নয়ন মেলা শুরু

তারিকুল ইসলাম সোহাগ, নীলফামারী প্রতিনিধি: নিন্ম আয় থেকে নিন্মমধ্য আয়ে দেশ উত্তরণে এই ঐতিহাসিক অর্জন উদযাপন উপলক্ষে সারা দেশের ন্যায়, নীলফামারীতে তিনদিন ব্যাপী চতুর্থবারের মত জাতীয় উন্নয়ন মেলা ২০১৮ শুরু হয়েছে।

এই উপলক্ষে ৪ অক্টোবর সকাল ১০টায় ভিডিও কনফারেন্সর মাধ্যমে সরাসরি এই মেলার উদ্ধোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
বৃহস্পতিবার (৪ অক্টোবর) নীলফামারী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে মেলার আয়োজন করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন, নীলফামারী উন্নয়ন মেলায় সার্বিক তদারকির জন্য নিয়োজিত অতিরিক্ত সচিব ও বাংলাদেশ বিমান চলাচল কতৃপক্ষ কমিটির সদস্য মো. আব্দুল হাই। জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় এই মেলা চলবে ৪ থেকে ৬ অক্টোবর পর্যন্ত।
উন্নয়ন মেলায় রয়েছে, তিনব্যাপী জেলা, উপজেলা, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পর্যায়ের সকল দপ্তরে বিশেষ সেবা প্রদান ও সরকারের উন্নয়নমূলক চিত্র প্রদর্শনী, তাৎক্ষনিকভাবে থানায় সাধারন ডায়েরী করার ব্যবস্থা, ট্রেনের টিকিট বিক্রি, বিমানের টিকিট বিক্রি, শিক্ষানবীশ ড্রাইভিং সনদ ও উত্তরা ইপিজেডের বিভিন্ন কারখানায় মেলা প্রাঙ্গন থেকে সুবিধা বঞ্চিত বেকার যুবকদের দরখাস্ত আহবান ও সাক্ষাৎকার গ্রহনের মাধ্যমে যোগ্য প্রার্থীদের তাৎক্ষনিক চাকুরির ব্যবস্থা করা হবে। এ ছাড়াও ফ্রি ইন্টানেট ও ওয়াইফাই ব্যবহারের সুব্যবস্থা রয়েছে।
প্রধানমন্ত্রীর উদ্ধোধন ঘোষনার পরে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্র বের করে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে মেলা প্রাঙ্গনে এসে আলোচনা সভায় মিলিত হয়। আলোচনা সভাশেষে, অতিথি বৃন্দ স্টল পরিদর্শন করেন ও সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

৫ অক্টোবর সর্ব সাধারনের স্টল পরির্দশন, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতি অনুষ্ঠান। ৬ অক্টোবর কুইজ প্রতিযোগিতা, স্টল পরিদর্শন, ফানুস ওড়ানো ও আলোচনা সভার মধ্য দিয়ে অনুষ্টানের সমাপ্তি ঘটবে।

ওই মাঠের উন্নয়ন মেলায় সরকারী বেসরকারী দপ্তর, ব্যাংক, বীমা ও এনজিওসহ সর্বমোট ১০০টি স্টোল স্থান পেয়েছে।
অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ও মেলার কমিটির আহ্বায়ক মো. শাহীনুর আলম বলেন, তিনদিনের উন্নয়ন মেলায় বীরমুক্তিযোদ্ধা, গণ্যমান্য ও রাজনৈতিক ব্যক্তি, সুশীল সমাজ, শিক্ষার্থী অভিভাবক দেশি/বিদেশী পর্যটক বিনিয়োগকারীসহ তৃণমুল পর্যায়ে জনসাধারনকে এই মেলায় সম্পৃক্ত করা হয়েছে।

ওই সময় উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত সচিব ও বাংলাদেশ বিমান চলাচল কতৃপক্ষ কমিটির সদস্য মো. আব্দুল হাই। জেলা প্রশাসক বেগম নাজিয়া শিরিন, পুলিশ সুপার আশরাফ হোসেন, অতিরিক্তি জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) শাহীনুর আলম, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন, পৌর মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ, স্থানীয় সরকার শাখার উপপরিচালক আব্দুল মোত্তালেব, উত্তরা ইপিজেডের জেনারেল ম্যানেজার মো. আব্দুস সোবহান প্রমুখ।

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রীর অর্জিত আর্ন্তজাতিক স্বীকৃতি ও সাফল্য তুলে ধরা হয়েছে। রুপকল্প-২০২১ ও রুপকল্প-২০৪১ এ উন্নত বাংলাদেশের প্রস্তবনা সম্পর্কে জনগনকে উদ্ধুদ্ধ করা।