১৪, ডিসেম্বর, ২০১৮, শুক্রবার | | ৫ রবিউস সানি ১৪৪০

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে দুই বিভাগ একীভূত করণের সিদ্ধান্ত

আপডেট: ডিসেম্বর ৬, ২০১৮

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে দুই বিভাগ একীভূত করণের সিদ্ধান্ত

রাবি প্রতিনিধি : শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ফলিত পদার্থবিজ্ঞান ও ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং (এপিইই) বিভাগকে ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের সঙ্গে একীভূত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। বুধবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিলের সভায় বিভাগ দুটি একীভূত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ফলে প্রায় অর্ধশত বছর পুরোনো এপিইই বিভাগের বিলুপ্তি ঘটতে যাচ্ছে।

চলতি ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষ থেকে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে। ফলে চলতি শিক্ষাবর্ষে এপিইই বিভাগে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীরা ইইই বিভাগের শিক্ষার্থী হিসেবে গণ্য হবেন। এছাড়া এপিইই বিভাগের বর্তমান শিক্ষার্থীদের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত গ্রহণে একটি কমিটিও গঠন করা হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত পদার্থবিজ্ঞান ও ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক মো. আরিফুল ইসলাম নাহিদ বলেন, ‘এপিইই বিভাগকে ইইই বিভাগে একীভূত করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ে এপিইই নামে কোন বিভাগ থাকছে না। ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষ থেকে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর করার হবে।’

এপিইই বিভাগের বর্তমান শিক্ষার্থীদের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘তাদের বিষয় সিদ্ধান্ত নিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক চৌধুরী মো. জাকারিয়াকে আহ্বায়ক করে ৫ সদস্যের একটি কমিটি গঠণ করা হয়েছে। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- প্রকৌশল অনুষদের ডিন প্রফেসর একরামু হামিদ, বিজ্ঞান অনুষদের ডিন এম খলিলুর রহমান খান, এপিইই বিভাগের সভাপতি মো. আরিফুল ইসলাম ও ইইই বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক আবু জাফর মু. তৌহিদুল ইসলাম। এ কমিটি বিভাগ দুটির কারিকুলাম পর্যালোচনা করে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে।

প্রসঙ্গত, গত ১১ নভেম্বর থেকে বিভাগ দু’টিকে একীভূত করে ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগ নাম দেওয়ার দাবিতে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে আন্দোলন করে আসছিলেন ফলিত পদার্থবিজ্ঞান ও ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের শিক্ষার্থীরা।