আজ বুধবার দুপুর ১:২৮, ১৮ই অক্টোবর, ২০১৭ ইং, ৩রা কার্তিক, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২৭শে মুহাররম, ১৪৩৯ হিজরী

জিততে বাংলাদেশের দরকার ৩৯০ রান, হাতে আছে ১০ উইকেট

নিউজ ডেস্ক | বার্তা বাজার .কম
আপডেট : মার্চ ১০, ২০১৭ , ৮:৩৯ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : খেলাধুলা
পোস্টটি শেয়ার করুন

গল টেস্টে মুশফিক রহিমদের ওপর সত্যিই প্রকৃতির আশীর্বাদ নেমে এসেছে। গেল দিনের শেষ সেশনটা মেঘ-বৃষ্টির পেটে না গেলে ১৮২ রানের সঙ্গে আরও রানের বোঝা চাপত টাইগারদের পিঠে।

আজ চতুর্থ দিনের শেষ বেলায় আবারও বৃষ্টির খেলা। শেষ পর্যন্ত ১০.৫ ওভার বাকি থাকতেই খেলার সমাপ্তি হলো। এতে লাভটা মূলত বাংলাদেশেরই। কারণ জয়ের চেয়ে বাংলাদেশ দল মনে-প্রাণে চাইবে ম্যাচটা বাঁচুক।

এদিকে বাংলাদেশ এখনও ৩৯০ রান পিছিয়ে। জিততে বাংলাদেশের দরকার ৩৯০, হাতে আছে ১০টি উইকেট। শনিবার ১৩ রানে তামিম ইকবাল আর ৫৩ রান নিয়ে পঞ্চম দিন ব্যাটিংয়ে নামবে সৌম্য সরকার। এর আগে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করে প্রথম ইনিংসে ৪৯৪ রান সংগ্রহ করে শ্রীলঙ্কা। জবাবে তৃতীয় দিনে বাংলাদেশ ৩১২ রানে অলআউট হয়ে যায়।

বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ ৮৫ রানের ইনিংস খেলেন মুশফিকুর রহিম। ১৮২ রানে এগিয়ে থেকে চতুর্থ দিন দ্বিতীয় ইনিংসের ব্যাটিংয়ে নামে লঙ্কানরা। বাংলাদেশি বোলারদের হতাশা উপহার দিয়ে ধীরে ধীরে লিডকে বিশাল সংগ্রহের দিকে নিয়ে যায় তারা।

চতুর্থ দিনের শুরুতে বাংলাদেশকে উইকেট পাইয়ে দেন তাসকিন আহমেদ। ৩২ রান করা করুনারাত্নেকে বিদায় করেন তাসকিন। কিন্তু আরেক ওপেনার উপুল থারাঙ্গাকে আটকাতে পারেননি সাকিব-রিয়াদরা! শেষ অবধি ১১৫ রানের দারুণ ইনিংস খেলে মিরাজের বলে সরাসরি বোল্ড হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান থারাঙ্গা।

তবে প্রথম ইনিংসে ১৯৪ রান করা কুশাল মেন্ডিস এদিন ফিরেছেন ১৯ রান করে। দলীয় ১৩৪ রানের মাথায় সাকিব আল হাসানের বলে তাসকিনের হাতে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেন মেন্ডিস। প্রথম সারির তিন ব্যাটসম্যানকে হারানোর পরও স্বাচ্ছন্দ্যে খেলে যায় শ্রীলঙ্কার অন্যান্য ব্যাটসম্যানরা।

বিশেষ করে বলের গুণাগুণ বিবেচনা করে দেখেশুনে তাসকিনদের খেলে যান দিনেশ চান্দিমাল। অবশ্য তাঁকে সঙ্গ দিতে গিয়ে ফিরে গেছেন আরও দুই ব্যাটসম্যান-গুনারাত্নে (০) এবং নিরোশান ডিকভেলা (১৫)।

কিন্তু পেরেরাকে নিয়ে নিজের অর্ধশতক পূর্ন করেন চান্দিমাল। শেষ দিকে ৩৩ রান করা পেরেরা মোস্তাফিজের হাতে কাটা পড়েন। এরপরেই ২৭৪ রানে ইনিংস ঘোষণা করে শ্রীলঙ্কা।