আজ শনিবার সকাল ১১:৫৭, ২৫শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং, ১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ৬ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৩৯ হিজরী

‘বাংলাদেশের ক্রিকেটের জন্য সতর্ক সংকেত’

নিউজ ডেস্ক | বার্তা বাজার .কম
আপডেট : অক্টোবর ২২, ২০১৭ , ১১:৫৩ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : ক্রিকেট
পোস্টটি শেয়ার করুন

সেমি-ফাইনালে খেললেও চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে বাংলাদেশের পারফরম্যান্স সন্তুষ্ট ছিলেন না মাশরাফি বিন মুর্তজা। দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে ওয়ানডে সিরিজে দলের বাজে পারফরম্যান্সে আরও বেড়েছে হতাশা। সতীর্থদের দিয়েছেন জেগে উঠার ডাক।

আগের দুই ম্যাচে ১০ উইকেট ও ১০৪ রানে হারের পর শেষ ওয়ানডেতে ২০০ রানে হার। সিরিজ শেষে মাশরাফি জানান, নিজেদের খেলায় ক্রিকেটাররা নিজেরাই সবচেয়ে হতাশ।

“শুধু আজকের ম্যাচ না, আগের দুই ম্যাচেও নিজেদের খেলা নিয়ে আমরা নিজেরাই হতাশ। যা হয়েছে তা চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি থেকেই হয়ে আসছে। আমাদের দ্রুত উন্নতি করতে হবে। এই কন্ডিশনে এসে খেলা আমাদের দ্রুত শিখতে হবে। নইলে দেশের বাইরে যে টুর্নামেন্ট আছে বা দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ আছে সেগুলো আসলে কঠিন হয়ে যাবে।”

২০১৪ সালে মাশরাফি নেতৃত্বে আসার পর এত বাজে সিরিজ কেটেছে খুব কমই। এমন হারে অধিনায়ক দেখছেন বিপদ সংকেত।

“ওদের সঙ্গে মূল্যায়ন করলে আমরা সব জায়গায় পিছিয়ে ছিলাম। এখানে আমরা প্রতিদ্বন্দ্বিতাও করতে পারিনি। খুব বাজেভাবে ম্যাচ হেরেছি। আমার মনে হয়, এই সময়টা বাংলাদেশের ক্রিকেটের জন্য অবশ্যই সতর্ক সংকেত। আমরা যারা খেলোয়াড় আছি তাদের এদিকে নজর দিতে হবে। নয়তো সামনের সিরিজ বা টুর্নামেন্টগুলো খুব কঠিন হবে।”

দক্ষিণ আফ্রিকায় এসে বড় একটা ধাক্কা খেয়েছে বাংলাদেশ। এত বাজে ফলের মধ্যেও মাশরাফি ইতিবাচক একটি বিষয় দেখছেন।

“এটা আমাদের জন্য ভালো হল, শেখার একটা ব্যাপার হল। আমরা বোলাররা দায়িত্ব নিতে পারিনি। অবশ্যই ব্যাটসম্যানরাও দায়িত্ব নিতে পারিনি। আমার মনে হয়, আমাদের সব খেলোয়াড়েরই বের করা উচিত আমরা কোন কারণে পারছি না। সেটা বের করতে পারলে আমার মনে হয়, সেদিকে জোর দেওয়া দরকার।”

“শেষ যে কয়দিন আছে, অসাধারণ অনুশীলন করেও এখান থেকে বের হয়ে আসা সম্ভব নয়। এটা দীর্ঘ একটা প্রক্রিয়া। সামনে এই ধরনের কন্ডিশনে কোনো সিরিজ বা টুর্নামেন্ট খেলতে সেভাবে প্রস্তুতি নিয়ে আসতে হবে।”

পেসারদের বল সুন্দরভাবে ব্যাটে এসেছে। তারপরও এত কম রানে গুটিয়ে যাওয়া মানতে পারছেন না মাশরাফি।

“ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং কোথাও আমরা ভালো কিছু করতে পারিনি। এখানে যা করতে পারতাম মানসিকভাবে ভেঙে পড়ায় সেটাও করতে পারিনি। এই ব্যাটিং অপ্রত্যাশিত তো অবশ্যই। ব্যাটিং অবশ্যই হতাশাজনক। আরও বড় রান করা দরকার ছিল।”