হাত-পা-মুখ বেঁধে গৃহবধূকে লাঠিপেটা : মারধরে গর্ভের সন্তান নষ্ট

আগৈলঝাড়ায় যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে নির্যাতন

অপূর্ব লাল সরকার, আগৈলঝাড়া (বরিশাল) থেকে: বরিশালের আগৈলঝাড়ায় যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে শারীরিক নির্যাতন করার অভিযোগ পাওয়া গেছে স্বামীর বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

অভিযোগসূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ফুল্লশ্রী গ্রামের মনির খলিফার মেয়ে সুমা আক্তারের সাথে চেঙ্গুটিয়া গ্রামের আজিজ ঘরামীর ছেলে মিরাজুল ইসলাম ঘরামীর চার বছর পূর্বে বিয়ে হয়। বিয়ের সময় ছেলের পরিবারকে নগদ টাকা ও স্বর্নালংকার যৌতুক হিসেবে দেয়া হয়েছে। বিয়ের পর একাধিকবার ব্যবসা করার কথা বলে স্ত্রী সুমাকে পিতার বাড়ি থেকে টাকা আনার জন্য বলতো স্বামী। টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে সুমাকে শারীরিক নির্যাতন করত স্বামী মিরাজুল।

বৃহস্পতিবার মিরাজুল ইসলাম ব্যবসার কাজে মোটরসাইকেল ক্রয়ের জন্য ২ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবি করে শ্বশুর পরিবারের কাছে। শ্বশুর পরিবার যৌতুকের টাকা দিতে অস¦ীকার করলে ঘরের দরজা জানালা বন্ধ করে ওড়না দিয়ে হাত-পা বেঁধে এবং গামছা দিয়ে মুখ বেঁধে দরজার লাঠি দিয়ে এলোপাথাড়িভাবে মারতে থাকে সুমাকে। মারধরের কারণে তার গর্ভের তিন মাসের সন্তান নষ্ট হয়ে যায়। সুমার ডাকচিৎকার শুনে স্থানীয়রা সুমাকে উদ্ধার করে। এ ঘটনার পর সুমা স্বামীর কাছ থেকে পালিয়ে এসে পিতার বাড়ি আগৈলঝাড়া উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি হয়। এ ঘটনায় সুমার পরিবার থেকে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে।

You might also like