আজ বুধবার দুপুর ১২:২২, ২৩শে আগস্ট, ২০১৭ ইং, ৮ই ভাদ্র, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ৩০শে জিলক্বদ, ১৪৩৮ হিজরী

দরিদ্র মেয়েদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বেগম আনোয়ারা গার্লস কলেজ

নিউজ ডেস্ক | বার্তা বাজার .কম
আপডেট : ফেব্রুয়ারি ৯, ২০১৭ , ৭:৪৫ পূর্বাহ্ণ
ক্যাটাগরি : শিক্ষা
পোস্টটি শেয়ার করুন

ঢাকার ধামরাইয়ে নারী শিক্ষা উন্নয়নের জন্য ব্যক্তি উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বেগম আনোয়ারা গার্লস কলেজ নামের একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। উপজেলা সদর থেকে প্রায় ৩০ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিমে রাজাপুর গ্রামের আশপাশের নেই কোনো নারী শিক্ষার প্রতিষ্ঠান । এখানকার সচ্ছল পরিবারের মেয়েরা শহরে উচ্চশিক্ষা নিলেও পিছিয়ে ছিল গ্রামের হত-দরিদ্র পরিবারের মেয়েরা। হতদরিদ্র পরিবারের ঘরে উচ্চশিক্ষার আলো পৌঁছে দিতে নিজ গ্রামে মায়ের নামে একটি গার্লস কলেজ প্রতিষ্ঠা করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল আলীম খান সেলিম।

উপজেলার চৌহাট ইউনিয়নের রাজাপুর গ্রামের আশপাশে মেয়েদের লেখাপড়ার জন্য কোনো কলেজ না না থাকা মেঘনা ব্যাংকের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আলীম খান সেলিম ২০১৩ সালে কলেজটি প্রতিষ্ঠা করেন। ধামরাই উপজেলায় এটিই একমাত্র গার্লস কলেজ।

বর্তমানে ওই কলেজে প্রায় সাড়ে তিনশ শিক্ষার্থী রয়েছে। গত বছর এইচএসসি পরীক্ষায় ধামরাই উপজেলার সাতটি কলেজসহ আশপাশের ১৮টি কলেজের  মধ্যে বেগম আনোয়ারা গার্লস কলেজের পাশের হার ছিল শীর্ষে।

কলেজের প্রতিষ্ঠাতা আব্দুল আলীম খান সেলিম বলেন, ছোট বেলা থেকেই স্বপ্ন ছিল মেয়েদের উচ্চশিক্ষার জন্য একটি কলেজ প্রতিষ্ঠা করা।

কলেজের অধ্যক্ষ আবু বক্কর সিদ্দিক বলেন, চারতলা বিশিষ্ট ভবনের এ কলেজটি চার বছর পার করলেও এখনো এমপিওভুক্ত হয়নি। দূরের ছাত্রীদের কলেজে যাওয়া-আসার জন্য ফ্রি-যাতায়াতের ব্যবস্থা রয়েছে। সেইসাথে ১৩ জন শিক্ষকসহ ২৭ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী রয়েছে। এসব শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতন বহন করেন কলেজের প্রতিষ্ঠাতা আব্দুল আলীম খান সেলিমকে। কলেজেটিকে ডিগ্রি কলেজে রুপান্তর করা হবে বলে জানান তিনি।