আজ শুক্রবার রাত ৩:৫১, ২৪শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং, ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা রবিউল-আউয়াল, ১৪৩৯ হিজরী

নায়ক দেবকে কেন সবাই এত ঘৃণা করছে?

নিউজ ডেস্ক | বার্তা বাজার .কম
আপডেট : অক্টোবর ১৬, ২০১৭ , ৬:৫৫ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : বিনোদন
পোস্টটি শেয়ার করুন

বেশকিছু দিন যাবৎ কলকাতা সিনেমা অঙ্গনে একটা প্রশ্নই ঘুরে ফিরে বেড়াচ্ছে। সেটার মুল বিষয় জনপ্রিয় নায়ক দেব। ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের খবরের উঠে এসেছে দেবের প্রযোজনা ও অভিনয়ে দুর্গাপূজায় মুক্তিপ্রাপ্ত ‘ককপিট’ সিনেমা নিয়ে নানা সমালোচনা।

একসময়ের সবচেয়ে ভদ্র ও বিনয়ী নায়ক দেবের সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ডে অনেকেই হয়েছেন বিস্মিত! টলিউড পাড়ার অনেকেই দেবের বিভিন্ন আচরণে বিরক্ত। কৌশিক গাঙ্গুলির ছবি ‘ধুমকেতু’ মুক্তির আগে তাতে ডাবিং করতে অস্বীকৃতি জানান দেব, অথচ দেবের প্রযোজনা সংস্থার ব্যানারে এই ছবি মুক্তির প্রস্তাব দিয়েছিলেন দেব নিজেই।

এইতো কয়েকমাস আগে দেব শিবপ্রসাদ মুখার্জীর সঙ্গে তাঁর ভুল বোঝাবোঝির অভিযোগ তোলেন। তাঁর ভাষ্যমতে, ‘প্রাক্তন’ এর কাজ শুরুর আগে অন্য একটি চলচ্চিত্র নির্মাণ নিয়ে শিবপ্রসাদের সঙ্গে প্রাথমিক চুক্তি হয় দেবের।

এবার ‘ককপিট’ মুক্তির একই সময়ে মুক্তিপ্রাপ্ত সৃজিত মুখার্জীর ‘ইয়েতি অভিযান’ এর উপর রীতিমত হামলাই করে বসে তাঁর ভক্তরা। ২০১৬ এর দুর্গাপূজায় সৃজিত মুখার্জীর পরিচালনায় ‘জুলফিকার’ চলচ্চিত্রে দেবের চরিত্র ও অভিনয়ের জন্য দারুণভাবে প্রশংসিত হন দেব।

‘ককপিট’ এর আশানুরূপ সাফল্য না পাওয়া আর এতসব সমালোচনার মাঝেই সম্প্রতি বান্ধবী রুক্ষ্মিণীকে নিয়ে সুইজারল্যান্ড বেড়াতে গিয়েছিলেন দেব। নিন্দুকের ভাষায় এত সমালোচনা নিতে না পেরে আসলে পালিয়েছিলেন তিনি।

২০১৭ তে দেবের মুক্তিপ্রাপ্ত ‘চ্যাম্প’ ও ‘ককপিট’ এর কোনটিই প্রযোজক আর অভিনেতা হিসেবে তাঁর নিজের প্রত্যাশাই পূরণ করতে পারে নি বলা হচ্ছে। ককপিটকে দেব-কোয়েল জুটির চলচ্চিত্র হিসেবে প্রচারণা না চালিয়ে দেব-রুক্মিণীকে নতুন জুটি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার চেষ্টাই ‘ককপিট’ এর ব্যর্থতার অন্যতম কারণ বলছেন অনেকে।

দেবের সামনে আছে অনিকেত চট্টোপাধ্যায় এর নতুন ছবি ‘কবির’ এর কাজ। এই ছবির মাধ্যমে আবারও নতুন যুদ্ধে নামছেন ‘প্রযোজক’ দেব। দেখা যাক, সুপারহিট ‘নায়ক’ দেব ‘প্রযোজক’ হিসেবে হিট হওয়ার পরীক্ষায় কতটুকু সফল থাকতে পারেন।