আজ সোমবার রাত ২:৪৫, ২৩শে অক্টোবর, ২০১৭ ইং, ৮ই কার্তিক, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ১লা সফর, ১৪৩৯ হিজরী

‘ফেক’ শব্দের আবিষ্কারক ট্রাম্প! এক হাত নিলেন হ্যারি পটার স্রষ্টা

নিউজ ডেস্ক | বার্তা বাজার .কম
আপডেট : অক্টোবর ১২, ২০১৭ , ১:২৩ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : আন্তর্জাতিক
পোস্টটি শেয়ার করুন

প্যারি পটার উপন্যাস কিংবা সিনেমা- দুটোর বদৌলতেই জগতজোড়া খ্যাতি মিলেছে লেখিকা জে কে রাওলিংয়ের। অর্থ-বিত্তের মালিকও হয়েছে।
কাহিনীর ইন্দ্রজালে তিনি যেমন ছেলে থেকে বুড়ো সবাইকে মন্ত্রমুগ্ধ করে রেখেছেন, তেমনি ছাড় না দেওয়া কথাতেও সবার মন জয় করেছেন। যেমন- মার্কিন প্রেসিডেন্টকে নিয়ে তার মন্তব্য বেশ কড়া এবং মহাক্ষমতাধর ব্যক্তিটিকে কোনো ছাড় দেননি তিনি।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে ট্রাম্প বুঝিয়েছেন যে, একটি উৎকৃষ্ট মানের শব্দকে তিনিই প্রতিষ্ঠা করেছেন। ইংরেজিতে যা ‘ফেক’ বা ভুয়া। ট্রাম্পের এমন দাবিতে রীতিমতো স্তম্ভিত রাওলিং।

এর আগেও ট্রাম্পকে নিয়ে কড়া মন্তব্য করেছিলেন লেখিকা। প্রেসিডেন্টকে ‘আত্মমুগ্ধতার দানব’ বলে তুলে ধরেছিলেন। এবার ওই সাক্ষাৎকারে যখন ‘ফেক’ শব্দটিকে ‘গ্রেটেস্ট’ বলে মন্তব্য করলেন এবং এর পেছনে তার অবদানের জানান দিলেন, তখন চুপ করে বসে থাকতে পারেননি রাওলিং। অবশ্য ট্রাম্প বিনয়ের সঙ্গে এও বলেছেন যে, এর আগেও শব্দটির ব্যবহার অন্যরাও করতে পারেন।
কিন্তু তিনি তা কখনই খেয়াল করেননি।

এ বিষয়ে জেকে রাওলিং যে মন্তব্য করেছেন তার ভিডিওটির শিরোনামই যথেষ্ট। তাতে বলা হয়েছে, ‘ডোনাল্ড ট্রাম্প ফেক শব্দটির কৃতিত্ব নিজে নিতে চাইছেন, যা তাকে (রাওলিং) স্তম্ভিত করেছে’।

ট্রাম্পের এ বিষয় নিয়ে টুইটারে হামলে পড়েছে মানুষ। রাওলিং টুইট করেন, “আমি মাত্র ‘ব্যাটশিট ক্রেজি’ বাক্যাংশটি তৈরি করলাম”।

আরেকজন লিখেছেন, যদি ট্রাম্প ফেক শব্দটি আবিষ্কারের কৃতিত্ব দাবি করেন, তবে আমিও একজন ভুয়া প্রেসিডেন্ট আবিষ্কারের দাবি করবো যিনি কিনা ডোনাল্ড ট্রাম্প।

অন্য একজন টুইট করেছেন, সত্যি কথা বলতে কি, ট্রাম্প যদি হ্যারি পটার আমি আবিষ্কার করেছি বলেও দাবি করতেন, তবুও আমি অবাক হতাম না।

যদি তিনি ফেক শব্দটি আবিষ্কারের কৃতিত্ব নিতেই চান, তবে এ শব্দটাই তার পরিচয় তুলে ধরে, এমনও লিখেছেন একজন।

এভাবে ট্রাম্পের নতুন দাবি নিয়ে গরম হয়ে আছে টুইটার।