আজ সোমবার সকাল ৮:৩২, ২১শে আগস্ট, ২০১৭ ইং, ৬ই ভাদ্র, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২৮শে জিলক্বদ, ১৪৩৮ হিজরী

পানির বোতল ছুড়ে অস্ট্রেলিয়া কর্মকর্তাকে আহত করলেন কোহেলি

নিউজ ডেস্ক | বার্তা বাজার .কম
আপডেট : মার্চ ১০, ২০১৭ , ৪:২০ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : খেলাধুলা
পোস্টটি শেয়ার করুন

ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে চলতি সিরিজে ডিআরএস বিতর্কের মধ্যেই এবার উত্তেজনার আগুনে ঘি ঢেলে দিল সে দেশের সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন।  ওই সংবাদপত্রের প্রতিবেদনে ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও কোচ অনিল কুম্বলের বিরুদ্ধে অভব্য আচরণের অভিযোগ করা হয়েছে।  ওই অসি সংবাদপত্রে বৃহস্পতিবার প্রকাশিত প্রতিবেদনে অভিযোগ করা হয়েছে, কোহলির ছুঁড়ে মারা পানির বোতলে অস্ট্রেলিয়া দলের এক অফিসিয়াল জখম হন।

বেঙ্গালুরুতে প্রথম ইনিংসে কোহলিকে লেগ বিফোর আউট দেয়া নিয়ে অনিল কুম্বলে আম্পায়ারদের রুমে ঢুকে জবাবদিহি চেয়েছিলেন বলেও প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে।  ডিআরএস গেটের ঘটনা প্রসঙ্গে ওই প্রতিবেদনে ডাউনআন্ডারে ২০০৭-০৮-এ মাঙ্কিগেট সিরিজের প্রসঙ্গ উত্থাপন করা হয়েছে।  বলা হয়েছে, ওই সময় তৎকালীন ভারতের অধিনায়ক কুম্বলে যে ভূমিকা নিয়েছিলেন, ফের তিনি সেই ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে এবং পর্দার আড়ালে থেকে সবাইকে উস্কানি দিচ্ছেন।

প্রতিবেদনে অভিযোগ করা হয়েছে, কোহলি অস্ট্রেলিয়া দলের সততা নিয়ে নির্লজ্জ প্রচার চালাচ্ছেন এবং পানীয়র বোতল ছুঁড়ে মেরে অসি অফিসিয়ালকে জখম করেছেন।  কিন্তু এ সবের নেপথ্যে রয়েছে কোচ কুম্বলের হাত।  মাঙ্কিগেটের সময়ও উস্কানিদাতাদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন কুম্বলেই।

একতরফাভাবে প্রকাশিত ওই প্রতিবেদনে ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্টের কোনো প্রতিক্রিয়া নেই।

অসি সংবাদপত্রের প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, আউট হয়ে ফেরার পর ড্রেসিংরুমে তার ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন।  অসি ব্যাটসম্যান পিটার হ্যান্ডসকোম্বের দিকে গলা কেটে নেয়ার মতো ইঙ্গিত দিয়েছিলেন।  প্রতিবেদনে আরো দাবি করা হয়েছে, আউট হয়ে ফিরে ড্রেসিংরুমে রাগে একটা পানীয়র বোতল টেবিলে ছুঁড়ে মারেন।  তা টেলিভিশন সেটে ধাক্কা খেয়ে ফিরে আসার পর অসি দলের এক অফিসিয়ালের পায়ে লাগে।

কোহলির বিরুদ্ধে খেলার ভাবাবেগ নষ্ট করারও অভিযোগ করা হয়েছে ওই প্রতিবেদনে।