২১, নভেম্বর, ২০১৮, বুধবার | | ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

সামরিক আবাসনে থাকতে চান ইমরান?

আপডেট: আগস্ট ২০, ২০১৮

সামরিক আবাসনে থাকতে চান ইমরান?

প্রধানমন্ত্রীর নির্ধারিত বাসভবন নয়, সামরিক আবাসনে থাকতে চান পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। দেশটির ২২তম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণের পর প্রথম আনুষ্ঠানিক বক্তব্যে একথা জানান তিনি। স্থানীয় সময় গতকাল রোববার সন্ধ্যার ওই বক্তব্যের মাধ্যমে ‘নয়া পাকিস্তানের’ রোডম্যাপ সম্পর্কেও ধারণা দেন তিনি। দেশটির সংবাদমাধ্যম ডন এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

বক্তব্যে ইমরান খান জানান, অপচয় রোধে প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে থাকবেন না তিনি। এর বদলে মিলিটারি সেক্রেটারির একটি বাসায় থাকার ইচ্ছা তাঁর। নতুন বাড়িতে মাত্র দুটি গাড়ি রাখা হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। বিলাসবহুল অন্য গাড়িগুলোর বিষয়ে ইমরান বলেন, ‘আমি ব্যবসায়ীদের ডাকব এবং তাদের কাছে এগুলো বিক্রি করব।’

প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনকে বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিণত করার পরিকল্পনার কথাও বক্তব্যে জানান ইমরান খান। প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে ৫২৪ জন কর্মী কাজ করেন, যা অপ্রয়োজনীয় বলে উল্লেখ করেন তিনি। নতুন বাসায় মাত্র দুজন সাহায্যকারী কর্মী রাখা হবে বলেও জানিয়েছেন সাবেক এই পাকিস্তানি ক্রিকেটার।

ডনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইমারান যে বাড়িতে থাকতে চান সেটি তিন বেডরুমের। তবে সেখানে সব উন্নত সুযোগ সুবিধা রয়েছে।

বিশ্লেষকরা বলছেন, ইমরান খান অপচয়রোধে প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে থাকতে চাচ্ছেন না, এটা অবশ্যই ভালো উদ্যোগ। তবে তিনি বাসভবন হিসেবে সেনা আবাসনকে বেছে নিয়ে এটাই প্রমাণ করলেন যে, সেনা বাহিনীর সঙ্গে তাঁর যোগসাজশ রয়েছে। অনেকে আবার এমনটাও বলছেন, পাক সেনাবাহিনীর সঙ্গে মিলে নির্বিঘ্নে বিভিন্ন নীল-নকশা বাস্তবায়ন করতেই ইমরান ওই বাসভবনটি নির্বাচন করেছেন।