২০, নভেম্বর, ২০১৮, মঙ্গলবার | | ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

প্রধানমন্ত্রী ষড়যন্ত্রকারীদের চিহ্নিত করেছেন

আপডেট: আগস্ট ২০, ২০১৮

প্রধানমন্ত্রী ষড়যন্ত্রকারীদের চিহ্নিত করেছেন

শিক্ষার্থীদের নিরাপদ সড়কের আন্দোলনে অনুপ্রবেশ করা ষড়যন্ত্রকারীদের প্রধানমন্ত্রী চিহ্নিত করেছেন বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

আজ রোববার মহিলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত শোক দিবসের এক আলোচনা সভায় খালিদ এ কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বলেন, ‘গত কয়েকদিন আগে নিরাপদ সড়কের দাবিতে আমাদের ছেলেরা আন্দোলন করেছিলো। কিন্তু এই আন্দোলনে প্রতিক্রিয়াশীলরা ঢুকে আওয়ামী লীগ অফিস আক্রমণ করেছিলো। প্রধানমন্ত্রী আমাদের উত্তেজিত না হয়ে, ঠান্ডা মাথায় অবস্থান নিতে বলেছিলেন। প্রধানমন্ত্রী এক মুহূর্তের জন্যও বিচলিত হননি। তিনি অবিচলভাবে পরিস্থিতি মোকাবেলা করে শুধুমাত্র ঘটনার পরিসমাপ্তি ঘটাননি, এ আন্দোলনের পেছনে যারা সরকারবিরোধী ষড়যন্ত্রে লিপ্ত ছিল সাহসিকতা ও সততা দিয়ে তাদেরও তিনি চিহ্নিত করেছেন।’

খালিদ বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা যায়না, কখনোই হত্যা করা যাবেনা- কারণ বঙ্গবন্ধু মানেই হল বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মাধ্যমে তাঁরা শুধু একটি মাত্র ব্যক্তি বা পরিবার নয়, পুরো দেশকে ধ্বংস করতে চেয়েছিলো কিন্তু তারা ব্যর্থ হয়েছে। আজকে বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল। নিজেদের অর্থায়নে পদ্মাসেতু নির্মাণ করছি, আমাদের মাথাপিছু আয় বৃদ্ধি পেয়েছে। দেশের অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়ন হয়েছে।’

নারীদের সম অধিকার প্রসঙ্গ টেনে আওয়ামী লীগের এ নেতা বলেন, ‘১৯৭২ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সংবিধানে সম অধিকার বিষয়টা অন্তর্ভুক্ত করেছিলেন। আর জননেত্রীর নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকার বাস্তবায়ন করেছে। দেশের প্রতিটি স্তরে নারীদের কর্মক্ষেত্র তৈরি হয়েছে। তারা সাহসিকতার সঙ্গে বাংলাদেশের নেতৃত্ব দিচ্ছেন।’

মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বেগম সাফিয়া খাতুনের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক মাহমুদা বেগম কৃকের পরিচলনায় আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সাহারা খাতুন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপু মণি, আব্দুর রহমান, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক ফজিলাতুন্নেছা ইন্দিরা, উপদপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, কার্যনির্বাহী সদস্য মেরিনা জাহান কবিতা প্রমুখ।