১৯, নভেম্বর, ২০১৮, সোমবার | | ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

ক্রিকেট অধিনায়কদের কার বেতন কত?

আপডেট: আগস্ট ১৯, ২০১৮

ক্রিকেট অধিনায়কদের কার বেতন কত?

বর্তমান বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় খেলা ক্রিকেট। বিশেষ করে এশিয়া মহাদেশে ক্রিকেটের জনপ্রিয়তা তুঙ্গে। জনপ্রিয়তা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে খেলোয়াড়দের পারিশ্রমিকও দিন দিন বাড়ছে। ক্রিকেট খেলুড়ে দেশগুলোর মধ্যে কোন দেশের ক্রিকেটার পারিশ্রমিক কত এক নজরে দেখে নিন-

১) বিরাট কোহালি: বর্তমান সময়ের তারকা ক্রিকেটারদের অন্যতম বিরাট কোহলি। ভারতের হয়ে তিন ফরম্যাটে ৩৪১ ম্যাচ খেলে ৫৭টি সেঞ্চুরির সাহায্যে ইতিমধ্যে ১৭ হাজার ৬৭৫ রান সংগ্রহ করেছেন তিনি।

ভারতীয় ক্রিকেট দলের এ অধিনায়ক, জনপ্রিয়তার পাশাপাশি আয়ের দিক থেকেও অন্যদের চেয়ে একধাপ এগিয়ে। অধিনায়কদের তালিকায় বেতনের হিসেবে তিনি দ্বিতীয় পর্যায়ে রয়েছেন। কোহলির মাসিক বেতন প্রায় ৬০ লাখ টাকা।

২) জো রুট-ইয়ন মর্গান: ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের টেস্ট অধিনায়ক জো রুট। জাতীয় দলের হয়ে ইতিমধ্যে ৭১টি টেস্ট খেলে ১৩ সেঞ্চুরিতে ৬ হাজার ৭৩ রান সংগ্রহ করেছেন তিনি।

অন্যদিকে ইংলিশদের ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক ইয়ন মর্গান। তিনি জাতীয় দলের হয়ে ইতিমধ্যে ২০৮টি ওয়ানডে এবং ৭৬টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন। অধিনায়ক হিসেবে দুইজনের পারিশ্রমিক সমান। রুট এবং মর্গানদের মাসিক বেতন প্রায় ৭০ লাখ টাকা।

৩) টিম পেইন: বল টেম্পারিংয়ের কারণে ক্রিকেট থেকে নির্বাসিত স্টিভ স্মিথের পরিবর্তে অস্ট্রেলিয়ার নেতৃত্ব দিচ্ছেন তরুণ ক্রিকেটার টিম পেইন। অসি দলের হয়ে ১৩টি টেস্ট এবং ৩৫টি ওয়ানডে খেলা টিমের মাসিক পারিশ্রমিক প্রায় ৬০ লাখ টাকা।

৪) কেন উইলিয়ামসন: নিউজিল্যান্ডের অন্যতম সেরা ক্রিকেটার কেন উইলিয়ামসন। ক্রিকেটের তিন ফরম্যাটে ইতিমধ্যে ২৪৩টি ম্যাচ খেলে ২৯টি সেঞ্চুরিসহ ১১ হাজার ৮১০ রান সংগ্রহ করেছেন তিনি। ব্যাট হাতে অসাধারণ খেলে যাওয়া নিউজিল্যান্ডের এ অধিনায়ক তুলানমূলক কম বেতন পান। তার মাসিক বেতন প্রায় ৩০ লাখ।

৫) ফ্যাফ ডুপ্লেসি: দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেট দলের অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিস। জাতীয় দলের এই তারকা ব্যাটসম্যান ইতিমধ্যে তিন ফর্মেটে ২১৩ ম্যাচ খেলে ১৮টি সেঞ্চুরিতে ৮ হাজার ৯৭৮ রান সংগ্রহ করেছেন। অধিনায়ক হিসেবে আফ্রিকান ক্রিকেট বোর্ড থেকে মাসে প্রায় ২৮ লাখ টাকা পান ডু প্লেসিস।

৬) দিনেশ চান্দিমাল-অ্যাঞ্জেলা ম্যাথিউস: শ্রীলঙ্কার ক্রিকেট দলের টেস্ট অধিনায়ক চান্দিমাল। জাতীয় দলের হয়ে ইতিমধ্যে ৪৮টি টেস্ট ম্যাচ খেলে ১১ সেঞ্চুরিতে ৩ হাজার ৬৪২ রান সংগ্রহ করেছেন চান্দিমাল।

অন্যদিকে শ্রীলংকার ওয়ানডে এবং টি-টোয়েনিট দলের অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন অ্যাঞ্জোলো ম্যাথিউজ। ক্রিকেটের সীমিত ওভারের ক্রিকেটে তিনি ইতিমধ্যে ২৭৩টি ম্যাচ খেলে ৬ হাজার ৩৯৭ রান সংগ্রহ করেছেন।

শ্রীলংকা দলের নেতৃত্বা দেয়া ম্যাথিউস এবং চান্দিমাল মাসিক বেতন হিসেব লংকান ক্রিকেট বোর্ড থেকে পান প্রায় ২০ লাখ টাকা।

৭) জেসন হোল্ডার: ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দলের অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন পেস বোলার জেসন হোল্ডার। তিন ফর্মেটের ক্রিকেটে ১২২ ম্যাচ খেলে ১৯৮টি উইকেট শিকারের পাশাপাশি ব্যাট হাতে ২ হাজার ৭৮৭ রান সংগ্রহ করেন হোল্ডার। ২৬ বছর বয়সী ক্যারিবীয় দলের এ অধিনায়ক নিজে দেশের ক্রিকেট বোর্ডের কাছ থেমে মাসিক বেতন হিসেব পান প্রায় ১৮ লাখ টাকা।

৮) সরফরাজ আহমেদ: পাকিস্তান ক্রিকেট দলের অন্যতম সফল অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ। তার নেতৃত্বে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে চ্যাম্পিয়ন হয় পাকিস্তান। তার অধীনে ধারাবাহিক পারফর্ম করে যাচ্ছে পাকিস্তান ক্রিকেট দল।

পাকিস্তানের এ উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান দলের হয়ে তিন ফরম্যাটে ইতিমধ্যে ১৭৯ ম্যাচ খেলে ৫ সেঞ্চুরিতে ৪ হাজার ৭২৬ রান সংগ্রহ করেছেন। অধিনায়ক হিসেবে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে মাসিক বেতন হিসেবে প্রায় ৬ লাখ টাকা পান তিনি।

৯) গ্রেইম ক্রেমার: জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দলের অধিনায়ক গ্রেইম ক্রেমার। জাতীয় দলের হয়ে তিন ফর্মেটে ১৪৪ ম্যাচ খেলে ২১১ উইকেট শিকারের পাশাপাশি ব্যাট হাতে ১ সেঞ্চুরিতে ১ হাজার ৩৫২ রান সংগ্রহ করেন তিনি। অধিনায়ক হিসেবে নিজ দেশের দেশের ক্রিকেট বোর্ডের কাছ থেকে মাসিক প্রায় ৬ লাখ টাকা বেতন পান।

১০) মাশরাফি-সাকিব: বাংলাদেশ ওয়ানডে দলের অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন দেশ সেরা পেস বোলার মাশরাফি বিন মুর্তজা। হাঁটুতে একাধিকবার অপারেশনের পরও ক্রিকেট খেলে যাচ্ছেন তিনি। তার অধীনে অসাধারণ পারফরম্যান্স করে যাচ্ছে বাংলাদেশ। জাতীয় দলের হয়ে ১৯০ ম্যাচ খেলা মাশরাফি নেতৃত্ব দেন ৫৮টি ওয়ানডেতে। তার অধীনে বাংলাদেশ দল সর্বোচ্চ ৫৭.১৪ শতাংশ ম্যাচে জয় পায়।

অন্যদিকে বাংলাদেশের টেস্ট এবং টি-টোয়েন্টি দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন সাকিব আল হাসান। বিশ্বসেরা এ অলরাউন্ডার ব্যাটে বলে পারফর্ম করে যাওয়ার পাশাপাশি দলকে জয় এনে দিতেও ভূমিকা রাখছেন। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পক্ষ থেকে মাসিক ৪ লাখ টাকা করে পান সাকিব এবং মাশরাফি।