১৬, অক্টোবর, ২০১৮, মঙ্গলবার | | ৫ সফর ১৪৪০

লঞ্চের আগাম টিকিট বুধবার থেকে

আপডেট: আগস্ট ১২, ২০১৮

লঞ্চের আগাম টিকিট বুধবার থেকে

পবিত্র ঈদুল আযহাকে সামনে রেখে আগামী বুধবার (১৫ আগস্ট) থেকে অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হবে। বিআইডব্লিউটিসির ঈদের বিশেষ সার্ভিস শুরু হবে আগামী ১৬ আগস্ট. আর স্পেশাল লঞ্চ সার্ভিস চালু হবে ১৯ আগস্ট থেকে।

বিআইডব্লিউটিএ সূত্র জানিয়েছে, ঈদে ঘরমুখী মানুষের চাপ সামাল দিতে নতুন টার্মিনাল ভবনের লঞ্চের কাউন্টারগুলো থেকে ডেকের যাত্রীদের টিকিট বিক্রি শুরু করা হবে।

এ ছাড়া যাতে করে পন্টুনে অতিরিক্ত যাত্রী যেতে না পারে এজন্য টার্মিনালগুলোতে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা এবং বসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। রোজার ঈদের মতোই সাত দিন আগে থেকেই ডেকের যাত্রীদের জন্য টিকিট বিক্রি চালু করার জন্য মালিকদের বলা হয়েছে। তবে সমস্যা হলো কোন লঞ্চে কতো যাত্রী নেওয়া হবে তার সঠিক কোনো হিসাব নেই।

অতিরিক্ত যাত্রীদের চাপ সামাল দেওয়া প্রসঙ্গে আলমগীর কবির বলেন, অতিরিক্ত যাত্রীর চাপ সামাল দিতে অতিরিক্ত লঞ্চ রাখা হবে। স্পেশাল সার্ভিস চালু হবে। ঈদে ফিটনেসবিহীন কোনো লঞ্চ চলাচলের সুযোগ নেই। লঞ্চে ভাড়ার বিষয়ে বিআইডব্লিউটিসি সূত্রে জানা যায়, আসন ব্যবস্থাপনা অনুসারে ছোট-বড় লঞ্চসমূহে ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে। বড় আকারের লঞ্চগুলোতে ডুপ্লেক্স ও ভিআইপি কেবিনের ভাড়া ৩০০০ টাকা থেকে ৬০০০ টাকা হয়ে থাকে। যেখানে দুটো বেড, এসি, রেফ্রিজারেটর, টিভি, ডাইনিং সুবিধা রয়েছে।

দুই বেড সুবিধায় ডাবল কেবিনের ভাড়া ১ হাজার ৮০০ থেকে আড়াই হাজার টাকা, এক বেডের সুবিধায় সিঙ্গেল কেবিন ৮০০ থেকে ১২০০ টাকা, সোফা-কাম-বেডের ক্ষেত্রে ৫০০ থেকে ৭০০ টাকা ভাড়া নেওয়া হয়ে থাকে। এখানেও এসি কিংবা ফ্যান ও টিভির সুবিধা রয়েছে।

এ ছাড়া লঞ্চের ডেকেও (লঞ্চের খোলা স্থান) যাত্রা করা যায়। বড় অনেক লঞ্চে কার্পেট দেওয়া রয়েছে। তবে চাদর বালিশ যাত্রীকে সঙ্গে বহন করতে হয়। এখানে ভাড়া ২০০ থেকে ২৫০ টাকা।