১৫, আগস্ট, ২০১৮, বুধবার | | ৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৩৯

আওয়ামী লীগের সেই শক্তি আর নেই: নোমান

আপডেট: আগস্ট ১২, ২০১৮

আওয়ামী লীগের সেই শক্তি আর নেই: নোমান

ক্ষমতার শেষ সময়ে সকল সরকারকেই স্বৈরাচারি রূপে দেখা গেছে বলে মন্তব্য করে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান বলেছেন, ‘আওয়ামী লীগকে যত শক্তিশালী মনে হয়েছে, সেই শক্তি এখন আর নেই’। তাই তারা স্বৈরাচারি রূপে আবির্ভূত হয়েছে।

রোববার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দল আয়োজিত এক মানববন্ধন কর্মসূচিতে তিনি এ মন্তব্য করেন।

‘বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি, মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার, নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থী ও সাংবাদিকদের ওপর বর্বর হামলা এবং গ্রেপ্তারকৃত ছাত্রদের অবিলম্বে মুক্তির দাবিতে এ মানববন্ধন করা হয়।

আব্দুল্লাহ আল নোমান বলেন, শেষ সময়ে সকল সরকারকে দেখা গেছে স্বৈরাচারি রূপে। স্বৈরাচারের মাত্রা বাড়িয়ে দিতে দেখা গেছে। বর্তমান সরকারও স্বৈরাচারি কর্মকাণ্ড বাড়িয়ে দিয়েছে। আমাদের ওপরে নির্যাতন চালাচ্ছে এবং মিথ্যা মামলা দিচ্ছে।

বর্তমান ক্ষমতাসীনরা স্বৈরতান্ত্রিক শাসকে রূপান্তরিত হয়েছে বলে মন্তব্য করে তিনি বলেন, সরকার সংবিধানের কোন ধারা মানছে না। যারা সংবিধানের রক্ষক, তারা এখন ভক্ষক হয়ে জনগণের ওপরে নির্যাতন চালাচ্ছে।

আইয়ুব খানের শাসনের কথা উল্লেখ করে নোমান বলেন, ‘অস্ত্র এবং টিয়ার গ্যাস ছিল তাদের শক্তি। আইয়ুবের পরে এরশাদ এসেছে। এরশাদও জনগণের ওপরে নির্যাতন করেছে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সে টিকে নাই। আওয়ামী লীগও ৯৬ সালে ক্ষমতায় এসে মানুষের ওপরে নির্যাতন করার কারণে ২০০১ সালের নির্বাচনে জনগণ ব্যালট প্রয়োগ করে তাদেরকে পরাজিত করেছে। সুতরাং আমি মনে করি, আওয়ামী লীগকে যত শক্তিশালী মনে হচ্ছে, সেই শক্তি এখন আর নেই’।

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের বিষয়ে তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সরকারের সমর্থন ছিল কৌশলগত। যখন সমস্ত জাতি শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সমর্থন দিয়েছে, তখন সরকারও বললো, আমরাও সমর্থন করি! এরপরেই শিক্ষার্থীদের ওপরে নির্যাতন চালিয়েছে ক্ষমতাসীনরা।

দেশে সুশাসন নেই মন্তব্য করে বিএনপির এই ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, আজকে দেশ অর্থনৈতিকভাবে তলাবিহীন ঝুড়িতে পরিণত হয়েছে।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি ইসতিয়াক আজিজ উলফাতের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মাদ ইবরাহিম, বিএনপি নেতা শিরিন সুলতানা, মুক্তিযোদ্ধা দলের সাধারণ সম্পাদক সাদেক আহমেদ খান প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।