১৮, অক্টোবর, ২০১৮, বৃহস্পতিবার | | ৭ সফর ১৪৪০

হতাশা থেকেই বিমান ছিনতাই

আপডেট: আগস্ট ১২, ২০১৮

হতাশা থেকেই বিমান ছিনতাই

যুক্তরাষ্ট্রের সিয়াটলে বিমান ছিনতাইয়ের সঙ্গে জড়িত ব্যক্তি এয়ারলাইন্সের কর্মী ছিলেন বলে নিশ্চিত হয়েছে কর্তৃপক্ষ। হতাশা থেকেই বিমানটি ছিনতাই করা হয়েছিল বলে প্রাথমিকভাবে জানিয়েছেন তারা। দেশটির সংবাদমাধ্যম ছিনতাইকারীর পূর্ণাঙ্গ পরিচয় প্রকাশ করেছে। ২৯ বছর বয়সী ওই ব্যাক্তির নাম রিচার্ড রাসেল বলে জানিয়েছে বিবিসি।

রিচার্ড রাসেল তিন বছরের বেশি সময় ধরে হরাইজন এয়ারের একজন কর্মী হিসেবে কর্মরত ছিলেন বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। যুক্তরাষ্ট্রের পিয়ার্স কাউন্টির এই বাসিন্দা বিমানে ব্যাগ লোডিং এবং পরিচ্ছন্নতার কাজ করতেন বলে বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

ছিনতাইয়ের ৯০ মিনিট পরই বিমানটি কেট্রন দ্বীপের পুগেট সাউন্ড এলাকায় বিধ্বস্ত হয়। ছিনতাইকারী রাসেল এতে নিহত হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এফবিআইয়ের সিয়াটল বিভাগের প্রধান জে টাব বলেন, বিমানের মধ্যে শুধুমাত্র একজন ব্যক্তি ছিলেন বলেই আমরা মনে করছি। এর বেশি কিছু নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

রিচার্ড রাসেলের একজন সাবেক সহকর্মী রিক ক্রিস্টেনসন তাঁকে অত্যন্ত শান্ত মানুষ হিসেবে বর্ণনা করেছেন। তিনি বলেন, ‘অন্যান্য কর্মীরাও রাসেলকে পছন্দ করত। আমি তার পরিবারের জন্য দুঃখিত।’

এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলের সঙ্গে রিচার্ড রাসেলের কথোপকথনের একটি অডিও প্রকাশ পেয়েছে। সেখানে রিচার্ডকে বলতে শোনা গেছে যে, ‘আমি একজন বিধ্বস্ত মানুষ’। প্রিয়জনদের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করে তিনি জানান কাউকে আঘাত করার ইচ্ছা তার নেই।

স্থানীয় সময় গত শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের সিয়াটল-টাকোমা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ছিনতাই হয় ৭৮ আসনবিশিষ্ট ‘টারবোপ্রপ কিউ ৪০০’ বিমানটি। হরাইজন এয়ারলাইনসের মালিকানাধীন বিমানটি ছিনতাইকালে এতে কোনো যাত্রী ছিল না। বিমানেরই কোনো কর্মী এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে শুরু থেকেই অভিযোগ করা হচ্ছিল।