১৭, অক্টোবর, ২০১৮, বুধবার | | ৬ সফর ১৪৪০

হাথুরু ও রোডসের মধ্যে পার্থক্য

আপডেট: আগস্ট ১২, ২০১৮

হাথুরু ও রোডসের মধ্যে পার্থক্য

যদি কাউকে প্রশ্ন করা হয়, আজকের বাংলাদেশ দলের কারিগর কে? সবাই একবাক্যে চন্ডিকা হাথুরুসিংহের নাম নেবে। বলা যায় আজকের এই বাংলাদেশ দলের পথিকৃৎ তিনি। কিন্তু টাইগারদের সফলতম এই কোচকে নিয়ে ছিল নানা বিতর্ক। বিশেষ করে ঘরোয়া ক্রিকেট না দেখা এবং কোনো সফর শেষে বোর্ডের টাকায় পরিবারের কাছে উড়ে যাওয়ার কারণে যথেষ্টই সমালোচিত হয়েছিলেন তিনি।

ঘরোয়া ক্রিকেটের না দেখার কারণে সেখানের পারফরমারদের আলাদা করার সুযোগও ছিল না তাঁর পক্ষে। দল নির্বাচনের ক্ষেত্রে মূলত নেট পারফর্মেন্সকেই প্রাধান্য দিতেন হাথুরু। ফলে ডিপিএল, এনসিএল, বিসিএলের মতো টুর্নামেন্টে যারা ভালো খেলেছে তাঁরা সুযোগ পেতো না। এমনকি `এ` দলের খেলাও দেখতেন না এই লঙ্কান কোচ। যেকোনো সিরিজ শেষ হলে বোর্ডের অর্থায়নে অস্ট্রেলিয়ায় পরিবারের কাছে উড়ে জেতেন তিনি। যার ফলে ঘরোয়া ক্রিকেটের পারফরমারদের সঙ্গে অবিচার করা হতো।

এখানেই হাথুরু ও রোডসের মধ্যে বড় পার্থক্য। হাথুরুর ঠিক উল্টো চরিত্র যেন নবনিযুক্ত কোচ স্টিভ রোডস। মাত্র কিছুদিন হলো টাইগারদের দায়িত্ব পেয়েছেন কিন্তু এখনই দারুণ `সিরিয়াস` দেখা গিয়েছে তাঁকে। তাঁর প্রথম সফর ছিল ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জ। প্রথম অ্যাসাইনমেন্টে তাঁর অধীনে দল ওয়ানডে এবং টি টুয়েন্টি সিরিজ জিতে এসেছে। সেই সফর থেকে দেশে ফিরেই শুরু করে দিয়েছেন ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা। কয়েকদিন বিশ্রাম নিয়ে আয়ারল্যান্ডে পাড়ি জমাবেন রোডস। সেখানে বাংলাদেশ `এ` দলের টি২০ সিরিজ দেখতে এই সফরে যাচ্ছেন তিনি। আগামী ১৩ই আগস্ট থেকে শুরু হতে যাওয়া বাংলাদেশ `এ` এবং আয়ারল্যান্ড উলভসের মধ্যকার টি টুয়েন্টি সিরিজ মাঠে বসেই দেখবেন রোডস। এক কথায় ভবিষ্যতের শিষ্যদের সামনে থেকেই যাচাই করবেন ইংলিশম্যান। টাইগার হেড কোচ মাথায় রেখেছেন পাইপলাইনকে। যা হাথুরুর আমলে দেখাই যেত না। এক কথায় বাংলাদেশ ক্রিকেটের পাইপ লাইন সম্পর্কে হাথুরুর ধারণা বেশ কমই ছিল বলতে হবে।

তাহলে হাথুরু কিভাবে সফল হলেন? এর জন্য যতটা না কৃতিত্ব তাঁর নিজের তাঁর থেকেও বেশি বাংলাদেশ দলের অভিজ্ঞ ক্রিকেটার সাকিব, তামিম, মাশরাফি, মুশফিক, মাহমুদউল্লাহদের। কেননা মাশরাফিদের নিয়ে গড়া একটি তৈরি স্কোয়াডই পেয়েছিলেন এই লঙ্কান কোচ। ফলে ঘরোয়া ক্রিকেটের প্রতি অতটা মনোযোগ দেয়ার প্রয়োজন বোধ করেননি তিনি।

আর এই জায়গাতেই হাথুরুর চেয়ে নিজেকে আলাদা প্রমাণ করেছেন স্টিভ রোডস। দায়িত্ব নেয়ার পর থেকেই ঘরোয়া ক্রিকেটের প্রতি মনোযোগ দিয়েছেন তিনি। পাইপলাইনের ক্রিকেটারদেরকে উঠিয়ে নিয়ে আসতে কাজ করার ইঙ্গিতও দিয়েছেন রোডস। এমনকি যেভাবে তৎপরতা দেখাচ্ছেন তাতে করে হাথুরুর সাফল্যকে টপকে যেতে তাঁর খুব বেশি সময় লাগবে না বলেই মনে হয়। কিন্তু সময়টা কত, সেটা সময়ই বলে দেবে।