২১, আগস্ট, ২০১৮, মঙ্গলবার | | ৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৩৯

উরু হোক সুগঠিত

আপডেট: আগস্ট ৯, ২০১৮

উরু হোক সুগঠিত

স্থুল উরু না হোক, সুগঠিত উরু সকলের পছন্দ। অতিরিক্ত মেদ জমলে উরু লাগে বেখাপ্পা। আর যদি থাকে সৌন্দর্যের মাপকাঠিতে ঠিকঠাক, তবে সেটাই কাঙ্ক্ষিত। উরুর বিষয়েও থাকা উচিত ভীষণ সচেতন।

হার্ভার্ড হেলথ পাবলিকেশনসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, অয়েস্ট্রোজেন দেহের উরু, কোমর ও শ্রোণীচক্রের চারপাশে চর্বি জমার কারণ হয়। আর টেসটোস্টেরণ চর্বি জমায় পেটে। হার্ভার্ড মেডিক্যাল স্কুলের আরেক গবেষণায় বলা হয়, উরুর চর্বি সার্বিকভাবে স্বাস্থ্যের জন্যে ভালো হলেও তা সৌন্দর্য নষ্ট করে। সাধারণত শরীরচর্চা কেন্দ্রে উরু স্লিম করতে ছুটে গেলে প্রশিক্ষক আপনাকে সীমাহীন পরিশ্রম করাবেন। তাই যদি নিজ উদ্যোগে এ কাজটি করতে চান, তবে পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

সোল-টু-সোল একাডেমির প্রতিষ্ঠাতা সানা বিদ্যালংকার জানান, উরুর চর্বি কমানোর অর্থ একে পেশিতে পরিণত করা। কেউ চান না তার উরু খুব বেশি সরু হোক। তবে বাড়িতে বা জিমনেশিয়ামে যেখানেই সুযোগ পান সুন্দর উরু পেতে নিন কিছু মৌলিক টিপস।

১. স্টেয়ারমাস্টার স্টেপমিল : ব্যায়ামাগারে স্টেয়ারমাস্টার ব্যবহার করতে পারেন ২০-৩০ মিনিট। স্পোর্টসফিট জিমের ব্যবস্থাপক গৌরব শর্মা জানান, স্টেয়ারমাস্টার স্টেপমিলের ব্যবহারে দেহের নিচের অংশের সৌন্দর্য আদর্শমানের করে তোলা যায়। ব্যায়ামের আগে হাই গ্লিসেমিক খাবার খেয়ে নিন আধা ঘণ্টা আগে। যদি জিমে যেতে অলস লাগে তবে বাড়িতে বা অফিসে সিঁড়ি ব্যবহার করুন।

২. ট্রেডমিল : কার্ডিওভাসকুলার ব্যায়াম এর চাবিকাঠি। ট্রেডমিলে দৌড়াতে পারেন। এতে বাড়তি চর্বি পুড়ে যায়। পেশি হয় সুগঠিত। এ যন্ত্রের উচ্চতা নিজের সামর্থ্য অনুযায়ী ঠিক করে নিতে পারেন। এতে উরুর ওপর চাপ পড়বে বিভিন্নভাবে। যদি বাইরে দৌড়ানোর সুযোগ থাকে তবে তা হেলায় হারাবেন না।

৩. স্কোয়াট : দুই পা কিছুটা ফাঁকা করে সোজা হয়ে দাঁড়ান। দুই হাঁটু ভাঁজ করে শূন্যে বসুন এবং আবারো দাঁড়ান। হাঁটু ভাঁজ হওয়ার সময় দুই হাত সামনের দিকে সমান্তরালভাবে বাড়িয়ে দিন। বসার সময় খেয়ার রাখবেন আপনার শিঁড়দাঁড়া সোজা হয়ে রয়েছে। একবার বসার পর শূন্য থেকে ৮ পর্যন্ত গুনতে থাকুন। তারপর আবার দুই পায়ে দাঁড়িয়ে পড়ুন। প্রতিদিন ৮-১০ বার এভাবে স্কোয়াট করুন।

৪. পা উঁচিয়ে রাখা : যদি ব্যায়ামাগারে যেতে আলস্য আসে তবে এই ব্যায়ামটি আপনার ইচ্ছা পূরণ করতে পারে। মেঝেতে উপুর হয়ে সটান শুয়ে পড়ুন। দুই হাত মেঝেতে চাপ দিয়ে দুই পা ৪৫ ডিগ্রি কোণে উঁচিয়ে ধুরুন। কিছু সময় ধরে রেখ ধীরে ধীরে পা দুটো নামিয়ে আনুন। ধীরে ধীরে পা দুটো উঁচুতে রাখার সময় বৃদ্ধি করতে হবে। প্রথম দিন ৬ সেটে ব্যায়ামটি শুরু করতে পারেন।

৫. লাঞ্জেস : প্রথমে সোজা হয়ে দাঁড়ান। এবার হাঁটু দুটো ভাঁজ করা শুরু করুন। একটি পা সামনের দিকে এগিয়ে নিন। যে পাটি সামনে ভাঁজ করে নিলেন তার ওপর পুরো দেহের ভর চাপিয়ে দিন। অপর পাটি সোজা অবস্থায় পেছনে থাকবে। এই ঢংয়ে আট সেকেন্ড থাকুন। আবার আগের অবস্থায় ফিরে আসুন। এবার অপর পা একই ঢংয়ে সামনে বাড়িয়ে দিন।

৬. নি-প্লাঙ্ক : ছবিতে দেখুন। বাম হাত ও ডান পায়ে ভর দিয়ে অন্য দুই হাত পা সামনে-পেছনে ছড়িয়ে দিন। যে দুটো হাত-পা ছড়িয়ে দেবেন তা সমান্তরাল রাখবেন। একইভাবে অন্য দুই হাত-পা ছড়িয়ে দিন। এ কাজ দিনে ৬ বার করে করুন।

৭. সাইক্লিং : দেহের বিশেষ কোনো অংশে চর্বি কমানো যখন কঠিন বলে মনে হয়, তখন সাইকেল নিয়ে বেরিয়ে যেতে পারেন। এটা উরু কমানোর দারুণ ব্যায়াম। সাইকেল দুই পা দিয়েই চালাতে হয়। তাই পায়ের দারুণ ব্যায়াম হয়। উরু তো বটেই, কোমরের দারুণ যত্নের উপায় সাইক্লিং।

এসব ব্যায়াম করার সঙ্গে স্বাস্থ্যকর খাবার গ্রহণ অতি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় বলে জানান বিশেষজ্ঞরা।

ছবি ও তথ্য – ইন্টারনেট