আরও বাড়বে তাপমাত্রা, এরপর ভারী বৃষ্টি

আষাঢ় ও শ্রাবণ- এই দুই মাস বর্ষাকাল। এখন পর্যন্ত বর্ষার সেই চিত্রের দেখা মেলেনি। সম্প্রতি আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন, জুন মাসে স্বাভাবিকের তুলনায় কম বৃষ্টিপাত হয়েছে।

শনিবার (২৯ জুন) আষাঢ় মাসের ১৫ দিন পার হয়ে গেলেও কাংখিত বৃষ্টির দেখা মেলেনি।

তবে শনিবার (২৯ জুন) সন্ধ্যা ৬টা-পরবর্তী আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতর বলছে, মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশের উপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে দুর্বল থেকে মাঝারি অবস্থায় রয়েছে। পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে উত্তর বঙ্গোপসাগরে একটি লঘুচাপ তৈরি হতে পারে।

আগামী ৪৮ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে আবহাওয়া অধিদফতর বলছে, বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বাড়তে পারে। ৪৮ ঘণ্টা পরবর্তী পাঁচদিনের অবস্থায় উল্লেখযোগ্য কোনো পরিবর্তনের সম্ভাবনা নেই বলেও উল্লেখ করেছে অধিদফতর।

অন্যদিকে শনিবার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে আরও বলা হয়, সারাদেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা সামান্য বাড়তে পারে।

এ বিষয়ে আবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুস বলেন, ‘আগামীকাল বৃষ্টিপাত কমতে পারে, তাই তাপমাত্রাও সামান্য বাড়তে পারে। লঘুচাপ তৈরি হয়ে গেলে বৃষ্টির পরিমাণ বেড়ে যাবে।’

শনিবার পূর্বাভাসে আরও বলা হয়, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ ও ঢাকা বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী বর্ষণ হতে পারে।

দেশে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল যশোর ও কুতুবদিয়ায়, ৩৬ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাতও হয়েছে যশোরে, ৫৫ মিলিমিটার। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল শ্রীমঙ্গলে ২৩ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
এই বিভাগের আরো খবর