‘আমাকে নিয়ম মানতে হয়, কিন্তু জনগণ তো নিয়ম মেনে বাজে কথা বলে না’

রাজধানীর ৪৯ নাম্বার ওয়ার্ডের রসুলবাগ এলাকা। একসময় ইউনিয়ন থাকলেও পরে যুক্ত হয় সিটি কর্পোরেশনে। যদিও সিটি কর্পোরেশনের কোনও সুবিধাই পাচ্ছেন না নাগরিকরা। রাস্তা ভাঙা, সামান্য বৃষ্টিতেই জমে পানি। অনেক সময় নোংরা পানি ঢুকে যায় বসতঘরেও। প্রায় পুরো ওয়ার্ড জুড়েই এই অবস্থা। দুর্ভোগ থেকে মুক্তি চান স্থানীয়রা।

জনগণের প্রত্যাশা পূরণ করতে না পারায় বিব্রত উত্তর সিটির ৪৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আনিছুর রহমান নাঈম। বৃহস্পতিবার ফেইসবুক লাইভে এসে তিনি বলেন, ‘জনদুর্ভোগের দায় নিতে হচ্ছে তাকে।’ ফেইসবুক লাইভে এসে স্বীকার করেন, এলাকার দুর্ভোগ নিরসনে ব্যর্থ তিনি। যদিও পরে ভিডিওটি সরিয়ে নিয়েছেন তিনি।

কাউন্সিলর আনিছুর রহমান নাঈম অভিযোগ করে বলেন, ‘বাসা থেকে বের হওয়ার সময় নোংরা পানির উপর দিয়ে বের হতে হয়। বাড়ির মালিকরা অন্যস্থানে গিয়ে বাসা ভাড়া নিচ্ছে। ভাড়াটিয়ারা চলে যাচ্ছে।’

প্রত্যাশিত কাজ না করতে পারায় আক্ষেপ করে কাউন্সিলর বলেন, ‘আমার দায়িত্ব মানুষের সমস্যা সমাধানে কাজ করা। প্রত্যাশা অনুযায়ী কাজ করতে না পাড়ায় জনগণের কাছ থেকে বাজে কথা শুনতে হয়। এসব কথা আমি কার কাছে গিয়ে বলব। আমি যাদের কাছে গিয়ে বলবো তাদের কাছে নিয়ম মেনে কথা বলতে হয়। কিন্তু, জনগণ তো আমাকে নিয়ম মেনে বাজে কথা বলে না।’

সমস্যা সমাধানে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট সবার সহযোগিতা চান আনিছুর রহমান।

উল্লেখ্য, আনিছুর রহমান ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন স্বেচ্ছাসেবক লীগের ঢাকা মহানগর উত্তরের সাধারণ সম্পাদক। পর পর ২বার দক্ষিণখান, আশকোনা এলাকার নির্বাচিত কাউন্সিলর ।

বার্তাবাজার/পি

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
এই বিভাগের আরো খবর