পাওনা টাকা চাওয়ায় ধর্ষণ চেষ্টা মামলা: আসামির দাবি

বাগেরহাটের শরণখোলায় কিশোরীকে (১৬) ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে ফুফাতো ভাই আমিনুল মোল্লার (৩০) বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে। রোববার (২৫ জুলাই) সকালে ফুফু (কিশোরীর মা) বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে ভাইপোর বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করেন। পুলিশ আসামীকে গ্রেপ্তার করে বাগেরহাট আদালতে পাঠিয়েছে।

উপজেলার রায়েন্দা ইউনিয়নের উত্তর রাজাপুর গ্রামের কাঞ্চন মোল্লার ছেলে আসামী আমিনুল মোল্লা মীরপুর-রায়েন্দা রুটে চলাচলকারী চাপাই পরিবহনের মালিক। শনিবার রাত ৯টার দিকে ধানসাগর ইউনিয়নের রাজাপুর গ্রামের কিশোরীর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়।

গ্রেপ্তার আমিনুল মোল্লা অভিযোগ করে বলেন, ফুফুর কাছে আমার চাষের জমি মেয়াদী দেওয়া সংক্রান্ত তিন বছর আগের এক লাখ ১০হাজার টাকা পাওনা রয়েছে। এই টাকা চাওয়া নিয়ে পারিবারিক কলহের সৃষ্টি হয়। শনিবার (২৪ জুলাই) রাত ৯টার দিকে রাজাপুর বাজারে বসে টাকার বিষয়ে জানতে চাইলে ফুফার সঙ্গে আমার কথা কাটাকাটি হয়। এই ঘটনার পরই তারা টাকা না দেওয়ার কৌশল হিসেবে মেয়েকে ভিকটিম বানিয়ে আমার বিরুদ্ধে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ তোলেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ঘটনার দিন রাতে মেয়েকে বাড়িতে একা রেখে তার মা পার্শ্ববর্তী রাজাপুর বাজারে একটি শালিস-বৈঠকে যান। এই সুযোগে আমিনুল ইসলাম ঘরে ঢুকে দরজা বন্ধ করে কিশোরীর মুখ চেপে ধরে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এরইমধ্যে বাদীর ছেলে বাড়িতে গিয়ে কড়া নাড়া দিলে আসামী দরজা খুলে দৌড়ে পালিয়ে যায়। এসময় কিশোরী তার ভাইকে ঘটনা জানায়।

শরণখোলা থানার ওসি মো. সাইদুর রহমান জানান, কিশোরী ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগের মামলা দায়ের পর আমিনুল মোল্লাকে গ্রেপ্তার করে জেলা কারাগারে এবং ভিকটিমকে ২২ধারায় জবানবন্দীর জন্য আদালতে পাঠানো হয়েছে।

বাবুল দাস/বার্তা বাজার/এসজে

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
এই বিভাগের আরো খবর