ইউপি সদস্যের তাণ্ডবে রেহাই পায়নি আনসার সদস্যও

নির্বাচনে দ্বিতীয় দফায় জয়লাভ করার পর পরই নিজের আধিপত্যকে আরও ব্যপকভাবে বিস্তার করতে এলাকায় চাঁদাবাজি, হামলা, চাঁদা না দিলে এলাকার নিরীহ লোকজনকে মারধর ও খুনের মামলায় মিথ্যা আসামী করাসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের অভিযোগ উঠেছে বরিশালের গৌরনদী উপজেলার এক ইউপি সদস্য ও তার সর্মথক লোকজনদের বিরুদ্ধে।

যার হাত থেকে রেহাই পায়নি এলাকার সাধারন জনগণ থেকে আনসার সদস্যও।

শনিবার(২৪ জুলাই) সন্ধ্যায় বাবার জন্য ঔষধ কিনে বাজার থেকে বাড়ি ফিরছিলেন গৌরনদী উপজেলার কমলাপুর গ্রামের বাসিন্দা আনসার সদস্য রাহাত সরদার। এ সময় খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য গিয়াস মৃধার ৪/৫ টি ইজিবাইকযোগে প্রায় ২৫/৩০ জন সমর্থক দেশীয় অস্ত্র নিয়ে অতর্কিত হামলা চালায় রাহাতের উপর।

আহত রাহতের বড় ভাই শাকিল সরদার সাংবাদিকদের জানান, বাবার জন্য ঔষধ কিনতে বাজারে যায় রাহাত (আনসার সদস্য)। অনেক্ষণ হয়ে গেলেও রাহাত ফিরে না আসায় এলাকায় ডাক চিৎকারের শব্দ শুনে ঘটনা স্থলে ছুটে যান তিনি (শাকিল)। গিয়ে দেখেন তার ছোট ভাইকে (রাহাত) খাঞ্জাপুর মৃধাবাড়ির লোক জন পিটিয়ে গুরুতর আহত করে বাজারের পাশে একটি বাগানে ফেলে চলে যান। আহত অবস্থায় উদ্ধার করে গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় গৌরনদী মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

আহত রাহাতের মা লাকি বেগম অভিযোগ করে বলেন, বেশ কয়েকবার তাদের বাড়িতে এসে বিভিন্ন সময় গালাগালিসহ যৌন হয়রানির হুমকি দিয়ে এক লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করেন গিয়াস মেম্বরের লোকজন এবং এলাকায় থাকতে হলে টাকা দিয়ে থাকতে হবে আার টাকা না দিলে মার্ডার মামলায় মিথ্যা আসামী করবে বলেও হুমকী দেয় গিয়াস মেম্বরের লোকজন।

এ বিষয়ে কথা বলার জন্য ইউপি সদস্য গিয়াস মৃধার মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন করেও কোন সাড়া পাওয়া যায়নি।

আরিফিন রিয়াদ/বার্তাবাজার/পি

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
এই বিভাগের আরো খবর