আজ রবিবার সকাল ৬:২২, ২০শে আগস্ট, ২০১৭ ইং, ৫ই ভাদ্র, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২৭শে জিলক্বদ, ১৪৩৮ হিজরী

এবার সালমান হত্যা নিয়ে মুখ খুললেন তার ভাই (দেখুন)

নিউজ ডেস্ক | বার্তা বাজার .কম
আপডেট : আগস্ট ১২, ২০১৭ , ১২:৩৩ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : বিনোদন
পোস্টটি শেয়ার করুন

সালমান হত্যা নিয়ে সরগরম গোটা বাংলা। রুবি সুলতানার এক ভিডিওতে জেগে ওঠেছে সালমান ভক্তরা। যুক্তি, পাল্টা যুক্তিতে এক পক্ষ প্রমাণ করতে চেষ্টা করছেন যে সালমান আত্মহত্যা করেছে, অন্য পক্ষ বলছেন এটা হত্যা। এসব প্রশ্নে সালমানের মা থেকে শুরু করে সামিরা, তার বাবা এমনকি সালমানের অভিযুক্ত শ্বশুর শফিকুল হক হীরাও কথা বলেছেন। কিন্তু এতোদিন মিডিয়ার সামনে কথা বলতে দেখা যায়নি সালমানের একমাত্র ছোট ভাইকে। কিন্তু এই এবারের ইস্যুতে তিনি এলেন মিডিয়ার সামনে।

সালমান হত্যা নিয়ে নতুন করে প্রশ্ন ওঠায় সম্প্রতি সামিরার বাবার একটি ভিডিও সাক্ষাৎকার ভাইরাল হয় সোশাল সাইটে। সেটা চোখে পড়ে সালমানের ভাই চৌধুরী শাহরানের। সেই ভিডিওতে সামিরার বাবা শফিকুল হক হীরার জানিয়েছেন যে, সেসময় একজন নায়ক সর্বোচ্চ এক লাখ থেকে দেড় লাখ টাকা পেতেন একটি ছবি করে। তাও সেটা দেয়া হতো ৬ কিস্তিতে। আর তাই সালমানের জন্য তিনি প্রতি মাসেই প্রচুর টাকা পয়সা দিতেন।

এমন ভিডিও দেখার পর সালমানের ভাই শাহরান হীরাকে জবাব দেয়ার ভঙ্গিতে জানান, সালমান শাহ তার সময়ের সেরা নায়ক। সেসময় তিনি সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক নিয়ে অভিনয় করতেন। সেসময়ই সালমান প্রতি ছবি করার জন্য ১০ থেকে ১২ লাখ টাকা পেতেন। এখন হিসেব করে দেখেন, সালমান তার চার বছরের ক্যারিয়ারে কতো টাকা আয় করেছেন! হিসেব করলে যা দাঁড়ায় ২৭০ লাখ টাকা। আর এই হিসেবে প্রতি মাসে সালমান অন্তত চার থেকে পাঁচ লাখ টাকা খরচ করতে পারতো। তাহলে হীরা সাহেব কেনো তাকে টাকা দিবেন, আর সালমানই বা কেনো হীরা সাহেবের টাকায় চলতে যাবেন?

এরপর সালমান শাহ হত্যার অনেক কারণ থাকতে পারে জানিয়ে শাহরান আরো জানান, সালমান হত্যার অনেক কারণ থাকতে পারে, তাকে মারার পেছনে অনেক রকমের ঘটনা জড়িত থাকতে পারে। কারণ তাকে এর আগেও অন্তত তিনবার হত্যা করার অ্যাটেম্প নেয়া হয়েছিলো। ভাইয়ের সাথে আমার একেবারে আন্তরিক সম্পর্ক ছিলো। এরমধ্যে একটি হচ্ছে, ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির অনেক মহিলাকে সেসময় অ্যাবিউসড করা হচ্ছিলো, তাদেরকে ইউজ করা হচ্ছিলো। কিন্তু সালমান এগুলোর বিরুদ্ধে দাঁড়ান। আজিজ মোহাম্মদের নাম এখানে আসছে, তার সাথে আসলে কি হয়েছিলো?

হোটেল সেরাটনে সালমানকে পাঁচ বছরের জন্য তার ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হতে প্রস্তাব করেছিলো আজিজ মোহাম্মদ ভাই। যাতে সালমান অন্যকারো সঙ্গে ছবি করতে না পারেন। আমার ভাই সে প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে। আর আরেকটি ঘটনা হোটেল সেরাটনেই। যেখানে একটি অনুষ্ঠানে আজিজ মোহাম্মদ ভাই আমার ভাবি সামিরাকে সবার সামনে ‘কিস’ করেছিলো। আর সেটা মেনে নিতে পারেননি আমার ভাই। সবার সামনেই সালমান আজিজ মোহাম্মদ ভাইকে থাপ্পড় মেরেছিলো।  কথায় কথায় এমনটাও জানিয়ে দেন শাহরান।