আজ বুধবার দুপুর ১:১০, ১৮ই অক্টোবর, ২০১৭ ইং, ৩রা কার্তিক, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২৭শে মুহাররম, ১৪৩৯ হিজরী

আলোচিত সেই রুবিকে জিজ্ঞাসাবাদ করবে পিবিআই

নিউজ ডেস্ক | বার্তা বাজার .কম
আপডেট : আগস্ট ১০, ২০১৭ , ১২:১৮ পূর্বাহ্ণ
ক্যাটাগরি : আদালত,প্রধান খবর
পোস্টটি শেয়ার করুন

আমেরিকা প্রবাসী চিত্রনায়ক সালমান শাহ্ হত্যা মামলার অন্যতম আসামি রাবেয়া সুলতানা রুবিকে জিজ্ঞাসাবাদ করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।  তার পূর্বে সেই মহিলার ফেসবুক একাউন্টে প্রকাশিত ভিডিও বার্তাগুলো যাচাই-বাছাই হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।  পিবিআই’র একাধিক কর্মকর্তা বুধবার বিডি২৪রিপোর্ট কে এসব তথ্য জানান।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআই’র বিশেষ পুলিশ সুপার আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘আমরা রাবেয়া সুলতানা রুবির প্রতিটি ভিডিও বার্তাকে আমলে নিয়েছি।  তার কথা বলার অধিকার আছে।  তিনি বলতেই পারেন।  প্রতিটি মানুষের কথা বলার অধিকার আছে। ’
তিনি বলেন, ‘আগে সে কি কথা বলছে, এখন যা বলছে সবকিছুই আমলে নিচ্ছি।  কিন্তু তার কথাবার্তা বলার যে ভঙ্গিমা, তাতে মনে হচ্ছে সে মানসিকভাবে অসুস্থ থাকতে পারে বা মাদকাসক্তও হতে পারে।  তার যে কোনও সমস্যা থাকতে পারে। ’

রুবির সব কথা গুরুত্বের সঙ্গে নেওয়া হবে না বলেও জানান পিবিআই’র এই কর্মকর্তা।  তার ভাষ্য, ‘এটাই তদন্তের একমাত্র অংশ নয়।  তাকে নিয়েই শুধু মামলা তদন্ত করছি না।  ভবিষ্যতে সে আরও কথা বলতে পারে, সে আরও কথা বলবে।  আমরা অবশ্যই তার এই কথাগুলোকে গ্রহণ করবো। ’

সম্প্রতি মামলার এজাহারভুক্ত আসামি রাবেয়া সুলতানা রুবি নিউ ইয়র্কে বসে একটি ভিডিও বার্তায় দাবি করেন, সালমান শাহকে হত্যা করা হয়েছে।  তিনি সালমানের মায়ের উদ্দেশ্যে বারবার বলেন, ‘সালমান আত্মহত্যা করেনি, তাকে হত্যা করা হয়েছে। ’

এমনকি নিজের চীনা স্বামী, ভাই, ছেলে ও সালমানের স্ত্রীসহ আরও অনেকের নাম উল্লেখ করেন রুবি।  তার ভিডিও বার্তাটি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে।  দেশের গণমাধ্যমে এ নিয়ে একাধিক খবর প্রকাশিত হয়।  শুরু হয় তীব্র প্রতিক্রিয়া।  তার এই বক্তব্যের পর নড়েচড়ে বসে পিবিআই।

পুলিশ সদর দফতরের এআইজি (গণমাধ্যম ও জনসংযোগ) সহেলী ফেরদৌস বাংলা বলেন, ‘সালমান শাহ মৃত্যুর ঘটনায় একটি হত্যা মামলা হয়েছে।  আমাদের হাতে কিছু ভিডিও এসেছে।  এই মামলাটি তদন্ত করছে পিবিআই।  তারা সাধারণত স্পেশাল মামলাগুলো তদন্ত করে থাকে।  ইতিমধ্যে যেসব ভিডিও এসেছে সেগুলো যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে।  এখানে যে ভিডিওটি দেখা যাচ্ছে, সেটির কণ্ঠটি রুবি নামের নারীর কিনা কিংবা যে ছবিটা দেখা যাচ্ছে সে আমাদের ওয়ান্টেড রুবি নামের ব্যক্তি কিনা, এসব বিষযে সত্যতা পাওয়া গেলে আমরা মনে করবো, এই নারী আমাদের ওয়ান্টেড, তার কাছে তথ্য থাকতে পারে।  সেক্ষেত্রে আমরা তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করবো। ’

রুবিকে জিজ্ঞাসাবাদের বিষয়ে পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, ‘যদি মনে হয় ভিডিওটি সত্যি রুবি নামে ওই নারীর, তার সংযোগ রয়েছে, তাহলে অবশ্যই তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। ’

আসামিকে ফেরত আনার বিষয়ে পুলিশ সদর দফতরের এআইজি (গণমাধ্যম ও জনসংযোগ) বলেন, ‘আমরা সবসময় আসামি ফেরত আনার ক্ষেত্রে ইন্টারপোলের সহযোগিতা নিয়ে থাকি।  কিছু প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে আসামি বা সন্ত্রাসীদের ফেরত আনা হয়।  এক্ষেত্রেও প্রয়োজন হলে ইন্টারপোলের সহায়তা নেওয়া হবে। ’