সিলেটের সব পর্যটনকেন্দ্র বন্ধ, শিগগিরই ঘোষণা আসছে কক্সবাজারেও

মহামারি করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে দ্বিতীয় বারের মতো বন্ধ হলো সিলেটের সকল পর্যটন কেন্দ্র। আগামি দুই সপ্তাহের জন্য সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক পর্যটক কেন্দ্র, হোটেল-মোটেল বন্ধ থাকবে।

ট্যুরিস্ট পুলিশ সিলেট অঞ্চলের পুলিশ সুপার (এসপি) মো. আলতাফ হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, বুধবার (৩১ মার্চ) সরকার থেকে এই নির্দেশনা জারি করা হয়েছে।

তিনি বলেন, সরকারি নির্দেশনা জেলা প্রশাসনও পাওয়ার কথা। নির্দেশনা অনুযায়ী কেবল সিলেটে নয়, সারা বাংলাদেশে পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে দুই সপ্তাহের জন্য নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। সে মোতাবেক সিলেট অঞ্চলের সব হোটেল, মোটেল, রিসোর্ট ও পর্যটনকেন্দ্র আগামী দুই সপ্তাহ বন্ধ থাকবে। তবে খাবার রেস্টুরেন্টগুলোর উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়নি।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সবাইকে মাস্ক পরিধান ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পরামর্শ দিয়েছেন মো. আলতাফ হোসেন।

তবে এ বিষয়ে জেলা প্রশাসন থেকে কোনো ধরনের নির্দেশনা এখনো জারি করা হয়নি বলে জানিয়ে তথ্য প্রদানকারী কর্মকর্তা সহকারী কমিশনার তানিয়া আক্তার।

অন্যদিকে খুব শিগগিরই কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতসহ পর্যটন কেন্দ্রগুলোও বন্ধের ঘোষণা আসছে বলে জানিয়েছেন কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ।

বুধবার (৩১ মার্চ) রাত ৮টার দিকে জেলা প্রশাসক জানান, আপাতত সরকারের জারি করা ১৮ নির্দেশনা মত সৈকতে পর্যটক সমাগম সীমিত করার জন্য কাজ চলছে।

আগের মত সমুদ্র সৈকতে ব্যাপক জনসমাগম হতে দেওয়া হচ্ছে না। প্রতিদিন সৈকতে জেলা প্রশাসনের একাধিক ভ্রাম্যমাণ আদালত কাজ করছে। তবে খুব শিগগিরই পর্যটন কেন্দ্র বন্ধের ঘোষণা আসবে।

জেলা প্রশাসক মামুনুর রশীদ বলেন, হুট করে কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হলে সেটা ফলপ্রসু হয় না। আমরা ফলপ্রসু সিদ্ধান্ত নিতে চাই।

কক্সবাজারের সঙ্গে অন্য জেলার তুলনা করলে হবে না জানিয়ে জেলা প্রশাসক মামুনুর রশিদ বলেন, কক্সবাজার পর্যটন শিল্পের পরিধি ব্যাপক। অনেকগুলো স্টেকহোল্ডার এই পর্যটনের সঙ্গে সম্পৃক্ত। সবার সঙ্গে আলাপ আলোচনা করে খুব শিগগিরই বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

বার্তাবাজার/ভি.এস

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
এই বিভাগের আরো খবর