কলেজছাত্রীর শরীরে দুর্বৃত্তদের আগুন, আটক বেয়াই

নরসিংদীতে ফুলন রানী বর্মণ (২২) নামের এক কলেজছাত্রীর শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে দৃর্বৃত্তরা।

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) রাত ৯টায় নরসিংদী পৌর এলাকার বীরপুর মহল্লায় এ ঘটনা ঘটে। অগ্নিদগ্ধ ফুলনকে গুরুতর আহত অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে শুক্রবার সকালে তাকে আইসিইউকে নেওয়া হয়।

এ ঘটনায় শুক্রবার (১৪ জুন) দুপুরে সনজিত রায় নামের ফুলনের এক বেয়াইকে আটক করেছে পুলিশ।

ফুলন রানী বর্মণ বীরপুর মহল্লার যুগেন্দ্র বমর্ণের মেয়ে। সে নরসিংদী উদয়ন কলেজ থেকে গত বছর এইচএসসি পাশ করলেও এখনো কলেজে ভর্তি হয়নি।

পরিবারের সদস্যরা জানায়, রাতে বাড়ির পার্শ্ববর্তী একটি দোকান থেকে মোবাইল রিচার্জ শেষে বাসায় ফিরছিল ফুলন। হঠাৎ করে দু’জন দুর্বৃত্ত তার শরীরে কেরসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দিয়ে পালিয়ে যায়। পরে ফুলনের চিৎকারে স্থানীয়রা গিয়ে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে নরসিংদী সদর হাসপাতাল নিয়ে যায়। সেখান থেকে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এ ব্যাপারে নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. শাহরিয়ার আলম জানান, খবর পেয়ে তিনি নরসিংদী সদর হাসপাতালে ছুটে যান। সেখানকার চিকিৎসক ফুলনের অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে পাঠালে তিনিও সঙ্গে যান। ঢামেকে নেওয়ার পর ফুলনের অবস্থা অবনতি হলে আজ (শুক্রবার) সকালে তাকে আইসিইউতে নেওয়া হয়। ফুলনের তার শরীরের ১২ শতাংশ পুড়ে গেছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

তিনি আরও জানান, নরসিংদী পুলিশ সুপারের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ফুলনের চিকিৎসা চলছে। এ ঘটনায় জড়িত দুর্বৃত্তদের গ্রেফতার চেষ্টা অব্যাহত আছে।

নরসিংদী সদর থানার ওসি সৈয়দুজ্জামান সমকালকে জানান, এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
এই বিভাগের আরো খবর